রাজনীতি

এমসি কলেজের গণধ’’ র্ষ’ ণে ছাত্রলীগের কেউ জ’ড়িত নেই: জয়

সিলেটের এমসি কলেজ ছাত্রাবাসে ধ’’ র্ষ’ ণের ঘটনায় তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়েছেন বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি আল-নাহিয়ান খান জয়। এ ঘটনার বিচার দাবি করে তিনি বলেছেন, ‘ধ’’ র্ষ’ ণের সঙ্গে সংগঠনটির কোন নেতাকর্মী জ’ড়িত নয়’।

আজ শনিবার এক ভিডিও বার্তা জয় বলেন, আপনারা দেখেছেন অনেক সময় বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নাম ব্যবহার করেও অনেকে অনেক ধরনের অ’পকর্ম করেছে। এসব সুবিধাভোগীরা সংগঠন কিংবা দলের নাম ভাঙিয়ে অ’প’রাধে জড়িয়ে পড়ে।

জয় বলেন, এমসি কলেজের ঘটনায় আম’রা বাংলাদেশ ছাত্রলীগের পক্ষ থেকে তীব্র নিন্দা এবং প্রতিবাদ জানিয়েছি। এ ঘটনায় যারা অ’ভিযু’ক্ত তাদের কারো ছাত্রলীগের সাংগঠনিক কোন পদ-পদবী নেই। সেখানে ৭ বছর ধরে সংগঠনটির কোন কমিটিও নেই।

অ’ভিযু’ক্তদের বিচার দাবি করে জয় বলেন, আম’রা ছাত্রলীগের প্রত্যেক নেতাকর্মীকে নির্দেশ দিয়েছি ধ’’ র্ষ’কদের যেখানে পাওয়া যাবে যেখানেই তাদের ধরে আইনের হাতে তুলে দেবে। অ’প’রাধী যেই হোক বিচার করতে হবে। বাংলাদেশ ছাত্রলীগ কখনও এ ধরনের অন্যায়ের প্রশ্রয় দেয়না।

প্রসঙ্গত, গত শুক্রবার বিকেলে স্বামীর সাথে এমসি কলেজে বেড়াতে গিয়েছিলেন এক তরুণী। সন্ধ্যায় তাদের কলেজ থেকে ছাত্রাবাসে ধরে নিয়ে আসে ছাত্রলীগের ৫/৬ জন নেতাকর্মী। এরপর দুজনকে মা’রধর করে স্বামীর সামনেই স্ত্রী’কে গণধ’’ র্ষ’ ণ করে তারা। রাতে ছাত্রাবাস থেকে এই দম্পত্তিকে উ’দ্ধার করে পু’লিশ। পরে ধ’’ র্ষ’ ণের শিকার হওয়া নারীকে ওসমানী হাসপাতা’লের ওসিসি সেন্টারে ভর্তি করা হয়।

এ ঘটনায় শনিবার সকালে ৬ জনের নাম উল্লেখ করে ও অ’জ্ঞাত ২/৩ জনের বি’রুদ্ধে শাহপরাণ থা’নায় মা’মলা করেন ধ’র্ষি’তার স্বামী।

এদিকে এ ঘটনার বিচার দাবিতে উত্তাল হয়ে উঠেছে সিলেটের এমসি কলেজ ক্যাম্পাস।আজ শনিবার দুপুরে ক্যাম্পাসসংলগ্ন সিলেট-তামাবিল সড়কে আ’গুন জ্বালিয়ে বি’ক্ষোভ শুরু করেন তারা। এসময় তারা ধ’’ র্ষ’ ণকারীদের বিচার দাবিতে বিভিন্ন স্লোগান দেন।

সিলেট মহানগর পু’লিশের উপ-পু’লিশ কমিশনার জ্যোর্তিময় সরকার বলেন, অ’প্রীতিকর ঘটনা এড়াতে ছাত্রাবাসে পু’লিশ মোতায়েন করা হয়েছে। সেই সাথে কলেজ কর্তৃপক্ষের নির্দেশে ছাত্রাবাস ছাড়ছেন শিক্ষার্থীরা। পু’লিশ এ ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রে’ফতার করতে পারেনি। পু’লিশের অ’ভিযান অব্যাহত আছে। শুক্রবার পু’লিশ অ’ভিযান চালিয়ে ছাত্রাবাসের সাইফুর রহমানের রুম থেকে আগ্নেয়াস্ত্র, ধারালো অ’স্ত্র ও ছোরা উ’দ্ধার করা হয়।

Back to top button