আন্তর্জাতিক

ধ’’ র্ষ’ ণচেষ্টার প্রতিশোধ নিতেই ‘২৫ কোপে’ হ’’ ত্যা

কয়েক বছর ধরে অ’বৈধ স’ম্পর্কের জেরে যৌ’ন নি’র্যা’তনের শিকার হয়েছে এক নারী। এমনকি তাকে ধ’’ র্ষ’ ণের চেষ্টাও করা হয়েছে। অবশেষে এই নি’র্যা’তন আর সইতে না পেরে কু-পিয়ে মে’রে ফেলে প্রতিশোধ নিয়েছেন ওই নারী। কিন্তু সেটা নেহাত এক বা দুই কোপ নই, টানা ২৫ বার ছু’রিকাঘাত করে মে’রেছেন তিনি।

ভা’’ রতীয় গণমাধ্যম জি নিউজের একটি প্রতিবেদনে এমনি তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে। এ ঘটনাটি ঘটেছে ভা’’ রতের মধ্যপ্রদেশের গুনায় এলাকায়। ভা’’ রতীয় কংগ্রেস থেকে বহিষ্কৃত নেতা ব্রজভূষণ শর্মা’র ওপর এতটাই রাগ ছিল ওই নারীর।

সম্প্রতি কংগ্রেস থেকে বহিষ্কৃত ওই নেতা রাত ১১টার দিকে ওই নারীর বাড়িতে যান। সেখানে কথা কা’টাকাটির পর তাকে ধ’’ র্ষ’ ণের চেষ্টা করেন। এরপর ওই নারী কংগ্রেস নেতার উপর ছু’রি নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েন। টানা ২৫টি ছু’রির কোপ মা’রেন তার শরীরে। ঘটনাস্থলেই সেই কংগ্রেস নেতার মৃ’ত্যু হয়। খু’’ ন করার পর ওই নারী নিজেই পু’লিশকে ফোন করে খবর দেন।

মৃ’ত কংগ্রেস নেতার স্ত্রী’ অবশ্য ওই নারীকেই আসল দোষী বলে অ’ভিযোগ করেছেন। তার দাবি, ব্রজভূষণকে নিজের প্রে’মের জালে ফাঁ’সিয়েছিলেন ওই নারী। তার থেকে নিয়মিত টাকা-পয়সা, গয়না-গাটি নিতেন ওই নারী। কোনো কারণে ঝগড়া হওয়ায় তিনি তার স্বামীকে কুপিয়ে খু’’ ন করেন বলে অ’ভিযোগ করেছেন ব্রজভূষণের স্ত্রী’।

ওই নারীর স্বামী একজন শিক্ষক। তিনি বাড়িতে ছিলেন না। আর সেই সুযোগে কংগ্রেস নেতা তার বাড়িতে যান। পু’লিশ জানতে পেরেছে- কয়েক বছর ধরেই ওই নারীর সঙ্গে কংগ্রেস নেতার অ’বৈধ স’ম্পর্ক ছিল। কিন্তু ঠিক কী’ কারণে ওই নারী তাকে খু’’ ন করেছে, তা এখনও পরিষ্কার নয়।

এই ঘটনায় পু’লিশও রীতিমতো অ’বাক হয়েছে। কতটা ঘৃ’ণা ও হিং’সা ভেতরে জমে থাকলে একজন নারী পঁচিশবার কুপিয়ে কাউকে খু’’ ন করতে পারে! আপাতত আ’দালতের নির্দেশে পু’লিশি হেফাজতে রয়েছেন ওই নারী। তার বি’রুদ্ধে খু’’ নের মা’মলা দায়ের করেছে পু’লিশ।

Back to top button