অপরাধজাতীয়

নোয়াখালীতে গৃহবধূকে বিবস্ত্র করে নি’র্যা’তনের ঘটনায় গ্রে’ফতার ২

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে স্বামীকে বেঁধে রেখে গৃহবধূকে নিজ ঘরে বিবস্ত্র করে নি’র্যা’তনের ঘটনার ৩৩ দিন পর নয়জনকে আ’সামি করে মা’মলা করা হয়েছে। রোববার (৫ অক্টোবর) দিবাগত রাত ১টার দিকে ধ’’ র্ষ’ ণচেষ্টার অ’ভিযোগে নির্যাতিতা গৃহবধূ (৩৫) বাদী হয়ে এ মা’মলা করেন।

এ ঘটনায় এখন পর্যন্ত দুই দফায় অ’ভিযান চালিয়ে দুজনকে গ্রে’ফতার করেছে পু’লিশ। এক আ’সামিকে রোববার বিকেল ৪টায় এবং অ’পর আ’সামিকে রাত ১১টায় একলা’শপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ড থেকে গ্রে’ফতার করে পু’লিশ।

তারা হলেন- একলা’শপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের জয়কৃঞ্চপুর গ্রামের খালপাড় এলাকার হারিদন ভূঁইয়া বাড়ির শেখ আহম্ম’দ দুলালের ছে’লে মো. আব্দুর রহিম (২০) ও একই এলাকার মোহর আলী মুন্সি বাড়ির মৃ’ত আব্দুর রহিমের ছে’লে মো. রহমত উল্যাহ (৪১)।

বেগমগঞ্জ থা’নার ভা’’ রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) মো.হারুন উর রশীদ এসব তথ্য নিশ্চিত করেন। তিনি জানান, পু’লিশের ৫টি ইউনিট ৭ ঘণ্টা অ’ভিযান চালিয়ে দুই আ’সামিকে গ্রে’ফতার করেছে।

অ’পরদিকে, ঘটনার পর ভ’য়ে বাড়িছাড়া নির্যাতিতা গৃহবধূকে সদর উপজে’লার মাস্টার পাড়ার তার এক আত্মীয়ের বাসা থেকে উ’দ্ধার করেছে পু’লিশ।

মা’মলার এজাহার সূত্রে জানা যায়, গত ২ সেপ্টেম্বর রাত ৯টার দিকে উপজে’লার একলা’শপুর ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের খালপাড় এলাকার নূর ইস’লাম মিয়ার বাড়িতে গৃহবধূর বসতঘরে ঢুকে তার স্বামীকে পাশের কক্ষে বেঁধে রাখে স্থানীয় বাদল ও তার সহযোগীরা। এরপর গৃহবধূকে ধ’’ র্ষ’ ণের চেষ্টা করে তারা। এ সময় গৃহবধূ বাধা দিলে তারা বিবস্ত্র করে বেধড়ক মা’রধর করে মোবাইলে ভিডিও চিত্র ধারণ করেন।

ওসি মো. হারুন উর রশীদ জানান, পু’লিশ অ’ভিযু’ক্ত অ’পর আ’সামিদের গ্রে’ফতারে জো’র তৎপরতা চালাচ্ছে। গ্রে’ফতার আ’সামিদের বিচারিক আ’দালতের মাধ্যমে জে’লা কারাগারে পাঠানো হবে।

ভুক্তভোগী গৃহবধূর বাবা জানান, আমি নিরীহ লোক। স’ন্ত্রাসীদের ভ’য়ে কোনো কথা বলার সাহস পাই না। আমি শুধু আল্লাহর কাছে বিচার চাই।

এ জঘন্য ঘটনার সাথে জ’ড়িতদের রাতের মধ্যে গ্রে’ফতারের দাবি জানান একলা’শপুর ইউনিয়ন পরিষদের ভা’’ রপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান ফিরোজ আলম ভুঁইয়া।

নোয়াখালী পু’লিশ সুপার মো. আলমগীর হোসেন জানান, গৃহবধূকে নি’র্যা’তনের ঘটনায় জ’ড়িত কাউকে ছাড় দেয়া হবে না। অ’ভিযু’ক্তদের গ্রে’ফতারে এবং নির্যাতিতা পরিবারকে আইনি সহযোগিতা দিতে জে’লা পু’লিশের ৫টি ইউনিট মাঠে কাজ করছে।

Back to top button