জাতীয়

মোটরসাইকেল কিনে না দেওয়ায় ঘুমন্ত মাকে পেট্রোল দিয়ে পুড়িয়ে হ’’ ত্যা

শেরপুরের শ্রীবরদীতে মোটরসাইকেল কিনার টাকা না দেওয়ায় পেট্রোল দিয়ে ঘুমন্ত অবস্থায় মাকে পুড়িয়ে হ’’ ত্যা করার অ’ভিযোগ ওঠেছে ছে’লের বি’রুদ্ধে। অ’ভিযু’ক্ত ছে’লে হানিফ মিয়াকে (১৪) গ্রে’ফতার করেছে শ্রীবরদী থা’না পু’লিশ। হানিফ পৌর শহরের সদাগর ওরফে সদা মিয়ার ছে’লে। ১১ অক্টোবর গভীর রাতে পৌরশহরের তাতিহাটী পশ্চিম মহল্লায় এই ঘটনা ঘটে। শনিবার (১৭ অক্টোবর) বিকেলে হানিফকে গ্রে’ফতার করে জে’ল হাজতে প্রেরন করা হয়েছে।

অ’ভিযোগ ও থা’না সূত্রে জানা গেছে, ১১ অক্টোবর সকালে মোটর সাইকেল ক্রয় করার জন্য হানিফ তার মা মোছা: হনুফা বেগম (৪০) এর নিকট টাকা চায়। টাকা না দেওয়ায় হানিফ গভীর রাতে ঘুমন্ত অবস্থায় মায়ের শরীরে পেট্রোল ছিটিয়ে গ্যাস লাইট দিয়ে আ’গুন ধরিয়ে দেয়। পরে বাড়ির লোকজন হনুফা বেগমকে উ’দ্ধার করে প্রথমে শেরপুর সদর হাসপাতাল পরবর্তীতে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লে নিয়ে ভর্তি করেন। পরে হনুফার অবস্থা আশ’ঙ্কাজনক হওয়ায় ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতা’লের কর্তব্যরত ডাক্তার তাকে শেখ হাসিনা বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জন ইনস্টিটিউটে প্রেরণ করেন। সেখানে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শুক্রবার (১৬ অক্টোবর) সকালে মা হনুফার মৃ’ত্যু হয়। এ ঘটনায় নি’হতর বড় ভাই দুলাল মিয়া বাদী হয়ে শ্রীবরদী থা’নায় একটি অ’ভিযোগ দায়ের করেছেন।

এ ব্যাপারে শ্রীবরদী থা’নার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মোহাম্ম’দ রুহুল আমিন তালুকদার বলেন, অ’ভিযোগের প্রেক্ষিতে হানিফ মিয়াকে গ্রে’ফতার করে জে’ল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে।

Back to top button