এসএসসি পরীক্ষার খাতা উধাও, এতপর দুই শিক্ষক বহিষ্কার

ঝিনাইদহের কালীগঞ্জ উপজে'লার বারবাজার মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় কেন্দ্র থেকে এসএসসি পরীক্ষার এক শিক্ষার্থীর খাতা উধাও হয়ে গেছে বলে জানা গেছে।

এ ঘটনায় দায়িত্বে থাকা দুই কক্ষ পরিদর্শককে বহিষ্কার করা হয়েছে। পরীক্ষা কেন্দ্রের সবকটি কক্ষে সিসি টিভি ক্যামেরা থাকলেও সেই খাতা উ'দ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

বহিষ্কৃত শিক্ষকরা হলেন বারবাজার মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক জেসমিন নাহার ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব বিদ্যানিকেতনের সহকারী শিক্ষক আকরাম হোসেন।

জানা গেছে, বৃহস্পতিবার ছিল এসএসসির কৃষি শিক্ষা বিষয়ের পরীক্ষা। ওই কেন্দ্রের ১নং কক্ষে দুই কক্ষ পরিদর্শক ৪১টি খাতা নিয়ে যান। এরপর পরীক্ষা শেষে ৪০টি খাতা জমা দেন। এরপর খাতার টপশিটে লেখা রোল নম্বর মিলিয়ে দেখেন হাট বারবাজার মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী হাফিজা ইয়াসমিনের খাতা নেই। পরে ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলেও কোনো সুরাহা হয়নি।

কেন্দ্রের হল সুপার সুবর্ণসারা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক রমেশ চন্দ্র বিশ্বা'স জানান, ১নং কক্ষে ৪১ জন পরীক্ষা দেয়। কিন্তু একটি খাতা কম পাওয়া যায়। মিলিয়ে দেখা যায় ২৩৬৮৭৮ রোল নম্বর শিক্ষার্থীর খাতা নেই। ওই শিক্ষার্থীর সঙ্গে কথা বলেও খাতা উ'দ্ধার করা সম্ভব হয়নি।

কালীগঞ্জ উপজে'লা নির্বাহী অফিসার সুবর্ণা রানী সাহা জানান, পরীক্ষার কক্ষে দায়িত্ব পালনে অবহেলার কারণে দুই কক্ষ পরিদর্শককে বহিষ্কার করা হয়েছে। পরীক্ষার খাতা হারিয়ে যাওয়া শিক্ষার্থীর ব্যাপারে যশোর বোর্ডকে বিষয়টি অবহিত করা হয়েছে।

Back to top button