হাসপাতা'লেই শি'শুকে যৌ'ন হয়'রানি, ডাক্তারকে জুতাপে'টা!

টাঙ্গাইলের বাসাইলে উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে আসা এক শি'শুকে যৌ'ন হয়'রানি করার অ'ভিযোগ উঠেছে উপ-সহকারী মেডিক্যাল অফিসার সুবোধ কুমা'র দাসের বি'রুদ্ধে। এ ঘটনায় বিক্ষুব্ধ জনতা তাকে জুতাপে'টা করে। শুক্রবার (২২ মে) দুপুরে বাসাইল উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এ ঘটনা ঘটে। অ'ভিযু'ক্ত সুবোধ কুমা'র দাস উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার হিসেবে কর্ম'রত রয়েছেন।

ভিকটিমের পরিবার ও হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, শি'শুটির কানে ব্যথা নিয়ে শুক্রবার সকালে তার মা তাকে উপজে'লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। হাসপাতা'লের জরুরি বিভাগে কর্তব্যরত উপজে'লা উপ-সহকারী কমিউনিটি মেডিক্যাল অফিসার সুবোধ শি'শুটির কানে চিকিৎসা দেওয়ার জন্য প্রাথমিক পরীক্ষা করেন। আউটডোরে রোগী দেখাতে টাকা লাগে একথা বলে শি'শুটির মায়ের কাছে পাঁচ টাকা দাবি করেন সুবোধ। এসময় শি'শুটির মা টাকা খুচরা করতে হাসপাতা'লের বাইরে যায়। এ সুযোগে শি'শুটিকে যৌ’ন হয়'রানি করে সে।

মা ফিরে এলে শি'শুটি তাকে সব কথা জানায়। শি'শুটির মা প্রতিবাদ করলে হাসপাতাল এলাকায় উত্তে'জনার সৃষ্টি হয়। খবর পেয়ে শি'শুটির পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা হাসপাতা'লে ছুটে যায়। এসময় বিক্ষুব্ধ জনতা সুবোধকে জুতাপে'টা ও মা'রধর করে। পরে খবর পেয়ে উপজে'লা পরিষদের চেয়ারম্যান কাজী অলিদ ইস'লাম ও উপজে'লা নির্বাহী কর্মক'র্তা শামছুন নাহার স্বপ্না ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। অ'ভিযোগ অস্বীকার করে বলেন সুবোধ কুমা'র বলেন, আম'রা বিভিন্ন সময় রোগী দেখি। এতে করে যদি কেউ খা'রাপ কিছু মনে করে তাতে আমা'র কিছু বলার নাই।

এ বিষয়ে উপজে'লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মক'র্তা ডা. ফিরোজুর রহমান বলেন, সুবোধের অন্যত্র বদলি করার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। উপজে'লা নির্বাহী কর্মক'র্তা শামছুন নাহার স্বপ্না বলেন, ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে বিক্ষুব্ধ জনতাকে শান্ত করি। কেউ কোনও লিখিত অ'ভিযোগ করেনি। এ ঘটনায় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ব্যবস্থা নেবে।