আন্তর্জাতিক

ফ্রান্সে ৭৬টি ম’স’জিদ বন্ধ করার হু’মকি ম্যাক্রোঁ সরকারের

ধ’র্মীয় উগ্রবাদ মোকাবিলায় ফ্রান্সজুড়ে যে অ’ভিযান চলছে এর অংশ হিসেবে দেশটির ৭৬টি ম’স’জিদ বন্ধ করে দেয়া হতে পারে। ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী জেরাল্ড ডানমানিন বলেন, ফ্রান্সের ৭৬টি ম’স’জিদকে বিচ্ছিন্নতাবাদ নিয়ে স’ন্দেহ করা হচ্ছে। স’ন্দেহের তালিকায় থাকায় ম’স’জিগু’লিতে অ’ভিযান চলবে বলে জানান তিনি।

ম’স’জিদে স’ন্দেহ’জনক কোন কার্যক্রম চোখে পড়লেই বন্ধ করে দেয়ার হু’মকি দিয়েছেন ফরাসি স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী। মৌলবাদের সঙ্গে জ’ড়ি’ত স’ন্দেহে বৈধ কাগজপত্রহীন ৬৬ জন অ’ভিবাসীকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানোর কথাও জানিয়েছেন।

ডারমানিন বলেন, ‘ফ্রান্সের ২ হাজার ৬০০টির বেশি মু’সলিম প্রার্থনাকেন্দ্রের মধ্যে ৭৬টি ম’স’জিদকে দেশের প্রজাতান্ত্রিক মূল্যবোধ এবং নিরাপত্তার জন্য হু’মকি মনে করা হচ্ছে।’

ধ’র্মীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর ই’মাম’দের বক্তব্য ফরাসি জাতির মূল্যবোধের সঙ্গে সাংঘর্ষিক বলে গণমাধ্যমকে জানান তিনি।

কোন কোন ম’স’জিদ স’ন্দেহের তালিকায় রয়েছে তা স্পষ্ট করেনি ডানমানিন। তবে ১৬টি ম’স’জিদ রাজধানী প্যারিসে অবস্থিত। ওই সকল ম’স’জিদ নিয়ে স্থানীয় গোয়েন্দা সংস্থার চিঠি হাতে পেয়েছেন বলে উল্লেখ করেন তিনি।

ফরাসি সরকারের ই’স’লা’ম বিদ্বেষী মনোভাবের কারণে অনেকটা আতঙ্কগ্রস্ত দেশটিতে বসবাসরত বিভিন্ন দেশের মু’সলিম’রা।

চলতি বছরের অক্টোবরে ‘ই’স’লা’ম সঙ্কটে’ রয়েছে বলে প্রকাশ্যে মন্তব্য করেন ফরাসি প্রেসিডেন্ট ই’মানুয়েল ম্যাক্রোঁ। সেই সঙ্গে ‘ই’স’লা’মি বিচ্ছিন্নতাবাদ’-এর বি’রু’দ্ধে ব্যাপক অ’ভিযান চালানোর ঘোষণা দিলে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন তিনি।

সেই সময়ে ক্লাসরুমে মহানবী (সা:)-এর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শনের জেরে স্যামুয়েল প্যাটি নামে এক শিক্ষককে হ’ত্যা করে এক যুবক। এরপর ফ্রান্স বিশ্ব নবীর ব্যঙ্গচিত্র প্রদর্শন করে যাবে বলে জানান ম্যাক্রোঁ। ই’স’লা’ম নিয়ে কটাক্ষ এবং মহানবীকে অবমাননার জেরে তার বি’রু’দ্ধে বিশ্বজুড়ে সমালোচনার ঝড় বয়ে যায়। প্রতিবাদ জানিয়ে বি’ক্ষো’ভ করে মু’সলিম রাষ্ট্রগুলো। বয়কট করা হয় ফরাসি পণ্য।

 

Back to top button