জেলার খবর

ই’স’লা’মী বক্তা আবু ত্ব-হার শরীরে ক’রো’না উপসর্গ

আ’লো’চি’ত ই’স’লা’মি বক্তা হিসেবে পরিচিত আবু ত্ব-হা মুহাম্ম’দ আদনান নি’খোঁ’জের ৮দিন পরে অবশেষে বাড়িতে ফিরেছে এসেছেন। তবে নি’খোঁ’জের আট দিন পর ফিরে আসা ই’স’লা’মী বক্তা আবু ত্ব-হার শরীরে ক’রো’না উপসর্গ দেখা দিয়েছে। তিনি আইসোলেশনে থাকতে চাইছেন, সুস্থ হলে কথা বলবেন গণমাধ্যমে। আবু ত্ব-হার ভাগ্নে সিরাজুল ই’স’লা’ম গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ত্ব-হার মধ্যে ক’রো’নার উপসর্গ রয়েছে। তিনি আইসোলেশনে থাকতে চাইছেন। এ জন্য তিনি সুস্থ হয়ে মিডিয়ার সামনে কথা বলবেন বলে আমাদের জানিয়েছেন তবে এখন নয়।

ক’রো’না পরীক্ষার স্যাম্পল দেয়া হয়েছে কি-না জানতে চাইলে তার ভাগ্নে সিরাজুল ই’স’লা’ম জানান, আপাতত স্যাম্পল দেয়ার চিন্তাভাবনা নেই। তিনি পারিবারিক আইসোলোশনে থাকবেন ১৪ দিন। এরপর পরিস্থিতি বুঝে স্যাম্পল দেয়ার সিদ্ধান্ত নেবে পরিবার।ত্ব-হার ভাগ্নে সিরাজ আরো জানান, তার (ত্ব-হার) শরীরে জ্বর, গলা-গায়ে ব্যথা ও কাশি আছে।

আ’দা’লতের মাধ্যমে আবু ত্ব-হা ও তার সঙ্গীদের নিজ নিজ পরিবারের জিম্মায় হস্তান্তরের পর সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলছেন না আবু ত্ব-হা। এর আগে শুক্রবার (১৮ জুন) রাত পৌনে ১২টার দিকে রংপুর আ’দা’লত চত্বরে সাংবাদিকদের ত্ব-হার মামা আমিনুল ই’স’লা’ম বলেন, তিনজনের জবানব’ন্দি নেওয়ার পর তাদের ‘নিজ জিম্মায়’ ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

আলহাম’দুলিল্লাহ আম’রা তাকে ফিরে পেয়েছি। এজন্য মহান আল্লাহ তায়ালার কাছে শুকরিয়া জানাই। আমি প্রধানমন্ত্রী ও স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি। আবু ত্ব-হার নি’খোঁ’জের ঘটনায় ২৪ ঘণ্টার মধ্যে তার খোঁজ নেওয়ার কথা তিনি জানিয়েছিলেন। এই সময়ের মধ্যেই তাকে আম’রা পেয়েছি। তিনি বলেন, আমি দেশবাসীর নিকট চির কৃতজ্ঞ যে সবাই এত ভালবাসা দেখিয়েছেন। তার জন্য সবাই দোয়া করেছেন। খোঁজ-খবর নিয়ে এবং আমাদের পাশে থেকেছেন। আপনাদের সবার মঙ্গল হোক।

প্রসঙ্গত, গত ১০ জুন রংপুর থেকে ঢাকায় আসার পথে রাজধানীর গাবতলী এলাকা থেকে ই’স’লা’মি বক্তা আবু ত্ব-হা মুহাম্ম’দ আদনান নি’খোঁ’জ হন। এছাড়াও তার সঙ্গে নি’খোঁ’জ হয়েছেন আব্দুল মুহিত, মোহাম্ম’দ ফিরোজ ও গাড়িচালক আমির উদ্দীন। ত্ব-হার নি’খোঁ’জ হওয়ার তথ্য জানিয়ে দারুসসালাম এবং মিরপুর থা’নায় গেলে কোনো থা’নাই সাধারণ ডায়েরি বা মা’ম’লা গ্রহণ করেনি বলেও অ’ভিযোগ করেছেন তার পরিবার। এ নিয়ে সর্বশেষ রংপুর সদর থা’নায় একটি জিডি করা হয়।

তার নি’খোঁ’জ হওয়া নিয়ে আলোচনার মধ্যে শুক্রবার ত্ব-হার খোঁজ মেলে। বিপ্লব মিয়া নামে এক প্রতিবেশী জানান, শুক্রবার দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে আবু ত্ব-হাকে তার শ্বশুর আজহারুল ই’স’লা’ম মন্ডলের বাড়িতে ঢুকতে দেখেন তিনি। পরে তাকে রংপুর নগরের আবহাওয়া অফিস সংলগ্ন মাস্টার পাড়ার ওই বাড়ি থেকে নিয়ে যায় পু’লিশ।

সংবাদ সম্মেলনে রংপুর মহানগর পু’লিশের (আরএমপি) ক্রা’ই’ম ডিভিশনের উপ-কমিশনার আবু মা’রুফ হোসেন বলেন, মা ও ভাইয়ের জিডির সূত্রে আম’রা (ত্ব-হার) অনুসন্ধান করতে থাকি। আজকে আম’রা গো’প’ন সূত্রে জানতে পারি ত্ব-হা তার (রংপুর নগরের) চারতলার ম’স’জিদে প্রথম স্ত্রী’র সঙ্গে আছেন। সেই সংবাদ পেয়ে আম’রা তাকে নিয়ে আসি। তাকে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে আম’রা অ’পর সঙ্গীদেরও সন্ধান পাই।

আবু মা’রুফ হোসেন বলেন, গাইবান্ধায় বন্ধু সিয়ামের বাসায় ব্যক্তিগত কারণে আত্মগো’প’নে ছিলেন চারজনেই। বন্ধু বাসায় না থাকলেও তার মায়ের কাছে ছিলেন এরা। ব্যক্তিগত ও পারিবারিক কারণে ত্ব-হা আত্মগো’প’নে যাওয়ার সিদ্ধান্ত নেন। সফরসঙ্গীরাও তাদের ফোন বন্ধ করে ত্ব-হার কাছে রেখে দেন।

Back to top button