জাতীয়

আ.লীগ নেতা স্কুলের গাছ কে’টে বললেন, `পারলে কেউ কিছু করুক`

গাজীপুরের কালীগঞ্জে বোয়ালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রায় শত বছরের পুরনো দুটি জাম গাছ কে’টে বিক্রির অ’ভিযোগ উঠেছে আওয়ামী লীগ নেতা স্কুল পরিচালনা কমিটির সভাপতির বি’রু’দ্ধে। এ ঘটনায় মঙ্গলবার উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তার (ইউএনও) কাছে লিখিত অ’ভিযোগ করেছেন বোয়ালী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় পরিচালনা পর্ষদের সাবেক সভাপতি মোফাজ্জল হোসেন পটুসহ ৪ জন।

অ’ভিযু’ক্ত আওয়ামী লীগ নেতার নাম আব্দুল গণি ভূঁইয়া। তিনি কালীগঞ্জ উপজে’লা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক এবং বোয়ালী গ্রামের বাসিন্দা।

অ’ভিযোগকারী মোফাজ্জল হোসেন পটু জানান, প্রায় শত বছরের পুরনো দুটি জাম গাছের বর্তমান বাজার দাম লাখ টাকার বেশী। কিন্তু বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির কোনো সিদ্ধান্ত ছাড়াই সভাপতি একক ক্ষমতায় নামমাত্র মূল্যে গাছ দুটি বিক্রি করেছেন। একক সিদ্ধান্তে গাছ কা’টার বিষয়টি আব্দুল গণি ভূঁইয়ার কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি আমা’র ক্ষমতায় গাছ কাটছি, পারলে কেউ কিছু করুক। ইউএনও সাহেবও বিষয়টি জানেন’।

বোয়ালী উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মাহবুবা বেগম জানান, গত ৮ সেপ্টেম্বর দপ্তরি স্কুলে পরিস্কার-পরিচ্ছন্ন করতে গাছ দুইটি কাটতে দেখে তাকে জানান। তিনি সভাপতি আব্দুল গণি ভূঁইয়াকে ফোনে জানালে গাছ কা’টার বিষয়টি জানেন বলে তাকে জানান।

উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা মো. শি’বলী সাদিক বলেন, অ’ভিযোগ পাওয়ার সহকারী কমিশনাকে (ভূমি) প্রধান করে তিন সদস্যের ত’দ’ন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। প্রতিবেদন পাওয়ার পর প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। তবে নিয়মানুযায়ী বিদ্যালয় পরিচালনা পর্যদের রেজুলেশন করে উপজে’লা কমিটিকে অবগত করতে হয়। এরপর উপজে’লা কমিটির সভা ডেকে অনুমোদনের সিদ্ধান্ত নিয়ে নিলাম বি’জ্ঞ’প্তির মাধ্যমে বিক্রি করার কথা। কিন্তু এ ক্ষেত্রে এসব নিয়ম মানা হয়নি।

যোগাযোগ করা হলে আব্দুল গণি ভূঁইয়া সাংবাদিকদের বলেন, ‘বিদ্যালয়ের জন্য নতুন ভবন নির্মাণের বরাদ্দ হয়েছে। তাই গাছ কে’টে ফেলেছি’।

Back to top button