খেলাধুলা

বাংলাদেশের ম্যাচে বিতর্কিত সিদ্ধান্ত, ক্ষোভ ঝাড়লেন জামাল ভূইয়া

নিঃস’ন্দেহে ফুটবল বিশ্বের সবচেয়ে জনপ্রিয় খেলা। ৯০ মিনিটের এই খেলায় খেলোয়াড় এবং দর্শকদের মধ্যে বেশ উ’ত্তে’জ’না ছড়িয়ে পড়ে। আর খেলা মানেই রেকর্ড ভাঙ্গার প্রতিযোগিতা। একজন খেলোয়াড়ের রেকর্ড আরেক খেলোয়াড় ভেঙ্গে দিয়ে নতুন রেকর্ড গড়বে, সৃষ্টি করবে নতুন এক ইতিহাস।

নতুন খবর হচ্ছে, দীর্ঘ ১৬ বছর পর সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের ফাইনালে জায়গা করে নেওয়ার সুযোগ এসেছিল বাংলাদেশের সামনে। নেপালের বিপক্ষে আগে গোল করে সেই সম্ভাবনা জেগেও উঠেছিল।

কিন্তু রেফারির বিতর্কিত পেনাল্টির সিদ্ধান্তে কপাল পুড়েছে বাংলাদেশের। ১-১ গোলের ড্রতে প্রথমবারের মতো ফাইনালে উঠে গেছে হিমালয়ের দেশটি। তবে যে পেনাল্টিতে কপাল পুড়েছে লাল-সবুজ জার্সিধারীদের, সেটির সিদ্ধান্ত যৌক্তিক ছিল কিনা, এ নিয়ে উঠেছে সমালোচনার ঝড়।

গোলকিপার আনিসুর রহমান জিকোর লাল কার্ডে এমনিতেই একজন কম নিয়ে খেলছিল বাংলাদেশ। তারপরও ১-০ গোলে এগিয়ে থাকায় ১০ জন নিয়েও বাকিটা সময় পাড়ি দেওয়ার চেষ্টায় ছিল লাল-সবুজের দল। কিন্তু ম্যাচের একেবারে শেষ মুহূর্তে পেনাল্টির সিদ্ধান্তে মা’থায় হাত!

উজবেকিস্তানের রেফারি আক্সরোল রিসকুলায়েভের বিতর্কিত সিদ্ধান্ত নিয়ে উত্তাল সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমগুলো। বাংলাদেশের ফুটবলপ্রে’মীরা ধুয়ে দিচ্ছেন রীতিমতো।

এমনকি ম্যাচ শেষ এই বিষয়ে ক্ষোভ ঝাড়লেন বাংলাদেশ অধিনায়ক জামাল ভূইয়া। জামাল টুইটারে লিখেন, ‘আমা’র মনে হচ্ছে আম’রা আজ বড় ধরনের ছিনতাইয়ের শিকার হয়েছি। এটা আসলেই লজ্জাজনক যে, সাফ চ্যাম্পিয়নশীপে কম্পিউটার রিভিউ সিস্টেম নেই। রেফারি ব্যতীত সবাই দেখতে পেল যে এটি পেনাল্টি হয়নি। আমি দল নিয়ে গর্বিত এবং একই সাথে আমি খুবই হতাশ।’

Back to top button