জাতীয়

দলীয় মনোনয়ন ফিরিয়ে নেওয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী ঘোষণা আ.লীগ নেতার

চতুর্থধাপে ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজে’লার টগবী ইউনিয়ন পরিষদ (ইউপি) নির্বাচন। নির্বাচনে আওয়ামী লীগ থেকে ওই ইউনিয়নের আওয়ামী লীগের সহসভাপতি ও উপজে’লা আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য মো. জসিম উদ্দিন হাওলাদারকে দলীয় মনোনয়ন দেওয়া হলেও একদিন পর তা ফিরিয়ে নেয়া হয়েছে। তার পরিবর্তে ওই ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে মনোনয়ন দেওয়া হয়েছে বর্তমান চেয়ারম্যান কা’ম’রুল হাসান চৌধুরীকে।

এদিকে মনোয়ন ফিরিয়ে নেওয়ায় ওই ইউনিয়ন থেকে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচন করার ঘোষণা দেন জসিম উদ্দিন হাওলাদার। বুধবার রাতে নিজ কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন তিনি।

এর আগে মঙ্গলবার বিকালে মনোনয়ন তালিকায় নাম থাকার পরেও দলীয় মনোনয়ন না দেওয়ায় টবগী ইউনিয়নের দুই সহস্রাধিক ক্ষুব্ধজনতা রাস্তায় নেমে আসে। তারা রাত ৯টা পর্যন্ত বিভিন্ন স্লোগান দিয়ে ইউনিয়নের মিঞারহাট, মনিরাম, উদয়পুর রাস্তারমা’থা, বোরহানগঞ্জ, হাকিমুদ্দিনসহ পুরো এলাকা প্রদক্ষিণ করে জসিমউদ্দিনের সঙ্গে থাকার অঙ্গীকার দেয়।

সংবাদ সম্মেলনে মো. জসিম উদ্দিন হাওলাদার নিজেকে টগবী ইউনিয়নের স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ঘোষণা দিয়ে বলেন, তিনি দীর্ঘদিন রাজনীতি, ব্যবসা-বাণিজ্যের পাশাপাশি ইউনিয়নের সর্বস্তরের মানুষের সেবা করে আসছেন। ইউনিয়নবাসীর ভালবাসা ও মুরব্বীদের সম্মতিতে টগবী ইউপিতে চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার ইচ্ছা পোষণ করেছেন। গত ১০ নভেম্বর নির্বাচন কমিশন চতুর্থধাপের নির্বাচনে টগবী ইউনিয়নের তফসিল ঘোষণা করলে, তিনি বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন ও নৌকা প্রতীকের আশায় ১৮ নভেম্বর বৃহস্পতিবার দলীয় মনোনয়নপত্র বোর্ডে জমা দেন। মনোনয়ন তালিকায় তার নাম নিশ্চিত দেখে তিনি টবগী ইউনিয়নের জনগনের সঙ্গে দেখা করতে ভোলায় ফিরে আসেন।

ভোলায় নেমে (সোমবার) জানতে পারেন, তাকে দলীয় মনোনয়ন থেকে বাদ দেওয়া হয়েছে। তখন তিনি স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদে নির্বাচনের সিদ্ধান্ত নেন।

জসিম উদ্দিন আরো বলেন, দলীয় মনোনয়ন যদি না পাই দুঃখ নাই। কারণ টগবী ইউনিয়নের জনগণ আমা’র সাথে আছে। আমি ভোটারদের উৎসাহে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করবো। তাই নির্বাচন কর্মক’র্তা, রিটার্নিং কর্মক’র্তা ও প্রশাসনসহ জে’লা-উপজে’লার দলীয় সকল নেতাদের কাছে টগবী ইউনিয়নে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি করছি। যাতে করে ভোটাররা নির্বিঘে তাদের পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন।

টগবী ইউনিয়নের বর্তমান চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট কা’ম’রুল হাসান চৌধুরী বলেন, তাকেই বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের মনোনয়ন বোর্ড দলীয় মনোনয়ন দিয়েছে। মাটি খেকো ইটভাটার মালিকের কিছু লেবার জসিমের নামে স্লোগান দিচ্ছে। লোকজন তার পক্ষেই আছে।তবে উপজে’লা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বোরহানউদ্দিন পৌরসভা’র মেয়র মো. রফিকুল ই’স’লা’ম বলেন, উপজে’লার সাতটি ইউনিয়নের পাঁচটি ইউনিয়নের দলীয় মনোনয়ন নিশ্চিত হয়েছে, টগবী ও পক্ষিয়া এখনও নিশ্চিত হয়নি।

তবে স্থানীয় একাধিক ভোটার জানায়, বিগত বছরের মতো এ বছর টগবী ইউনিয়নে ভুল লোককে মনোনয়ন দিলে আওয়ামী লীগ প্রার্থী ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ছিট’কে পড়বে।

Back to top button