জাতীয়

তরুণদের আইডল ই’স’লা’মিক বক্তা সৈয়দ মোকাররম বারী

তরুণদের আইডল, সুশিক্ষায় শিক্ষিত তরুণ বক্তা, ই’স’লা’মিক স্কলার মা’ওলানা সৈয়দ মোকাররম বারী। তিনি অল্প কয়েকদিনে সব শ্রেণি-পেশার মানুষের কাছে ব্যাপক গ্রহণযোগ্য হয়ে উঠেছেন। বর্তমানে যে ক’জন ই’স’লা’মি চিন্তাবিদ রয়েছেন, তাদের মধ্যে তিনি অন্যতম। একটি ওয়াজ এর বক্তব্য এ জীবন নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ কথা যা বলেন।

সৈয়দ মোকাররম বারী বলেন, যে বান্দা নিজের জ্ঞান দিয়ে মন দিয়ে এতোটুকু বলবে আজকে থেকে আমা’র কোন স্বপ্ন নাই, চাওয়া পাওয়া নাই ,অক্ষেপ নাই ,আফসোস নাই ,আমা’র সম্পূর্ণ জীবন, আমা’র পরিবারের জীবন কে, আমি আমা’র আল্লাহর রহমতের উপর ছেড়ে দিয়েছি আল্লাহপাক বলবে যে বান্দা আমা’র নামে যেতো ছেড়ে দিয়েছিস তোর জীবন নৌকা আমি আল্লাহ কথা দিলাম এই জীবন নৌকা ডুবতে দেব না , এতে বান্দর জীবন এ সুখ বয়ে আসে তাই আমাদের সবার উচিত আল্লাহ উপর ভরসা করে আমাদের জীবন নৌকা আল্লাহ উপর ছেড়ে দিতে উনি এমন এক আলোচক যিনি ওয়াজের ময়দানে ই’স’লা’ম কে এমন শান্তিপূর্ণ ভাবে তুলে ধরেন যার দরুন মানুষ শুধু ওনার লেকচার শুনে নাহ বরং মন থেকে তা আমল করার আগ্রহ অনুপ্রেরণা খুঁজে পায়।

ফেসবুক ইউটিউব সহ বিভিন্ন সোশাল মিডিয়াতে যার এক একটি ভিডিওতে লক্ষ লক্ষ ভিউ, লাইক, ও সুন্দর সুন্দর কমেন্টস পরিলক্ষিত করা যায়। যা তার প্রতি মানুষের অগাধ ভালোবাসার নিদর্শন বহন করে। ওনার ওয়াজে অনুপ্রা’ণিত হয়ে বহু যুবক আজ মা’দ’ক , আত্মহ’ত্যা এবং বিভিন্ন অ’নৈ’তিক স’ম্প’র্ক সহ ইত্যাদি খা’রা’প কাজ থেকে নিজেদের সরিয়ে আনতে পেরেছে। যার আলোচনার ভক্ত মু’সলিম সহ বিভিন্ন ধ’র্মাবলম্বীদের অনেক মানুষ আছেন। যারা উনার কথাকে ফলো করেন।

জনপ্রিয় এই আলোচক সৈয়দ মোকাররম বারী তার প্রাথমিক শিক্ষা শুরু করেন, আল আমিন বারীয়া কা’মিল মডেল মাদ্রাসা থেকে। পরে চট্টগ্রাম সোবহানিয়া আলীমা মাদ্রাসা ও চট্টগ্রাম কলেজ থেকে উচ্চশিক্ষা কা’মিল অনার্স মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। বর্তমানে বিভিন্ন বিষয়ের উপর বই লিখার কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করে রেখেছেন।

তিনি বর্তমানে চট্টগ্রাম সিদ্দিকীয়া নেজামীয়া ম’স’জিদে খতিব হিসেবে দায়িত্বরত আছেন। পাশাপাশি মানবতার উপকারের বিভিন্ন কাজে নিজেকে আত্মনিয়োগ করার চেষ্টা করেন। ” Sayed Mokarram Bari ” নামে ওনার ব্যক্তিগত পেইজ রয়েছে যেটিতে ওনার প্রায় ৯ লক্ষের উপর মানুষ যু’ক্ত রয়েছে ,অল্প কিছুদিনের মধ্যে যা ১ মিলিয়ন ছুঁয়ে যাবে। পেইজটিতে তার ব্যক্তিগত পোস্ট বয়ান তিলাওয়াত ও লাইভ শেয়ার করেন তিনি ।

তিনি বাংলাদেশের একটি অরাজনৈতিক মানবতার সংগঠন “তোহফা ফর ম্যানকাইন্ড” এর প্রধান উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। যেখান থেকে ভালোবাসা নিয়ে সাধ্যমতো সর্বদা গরীব অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়ানোর চেষ্টা করেন। তিনি সবার সাথে সর্বদা হাসিমুখে কথা বলে আন্তরিক ভালোবাসা মায়ার প্রকাশ করেন।

তিনি চান বিশ্বে মানুষ ই’স’লা’মের মানবতার মোহাব্বতের বার্তা দিয়ে নিজেদের অশান্তি অগোছালো জীবনের মধ্যে ভালোবাসার শান্তির আলো প্রজ্বলিত করুক। হিং’সা বিদ্বেষ হানাহানি মা’রামা’রি দিয়ে নয়, বরং মনুষ্যত্ব অর্জন করে অন্যের উপকারী মানুষ হোক সবাই। তিনি সবার কাছে উনার জন্য দোয়া চেয়েছেন মহান আল্লাহপাক যেন যেন তাকে দ্বীনের জন্য কবুল করেন এবং নেক হায়াত দান করেন আমিন।

Back to top button