রাজনীতি

দেশের অবস্থা ১৯৭১ সালের চেয়েও খা’রা’প

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ই’স’লা’ম আলমগীর বলেছেন, ১৯৭১ সালের পা’কিস্তানের চেয়েও খা’রা’প অবস্থা এখন দেশের। কারণ, সেসময় পা’কিস্তানিরা ঘোষণা দিয়ে আমাদের সাথে যু’দ্ধ করত। কিন্তু বর্তমানে আওয়ামী লীগ ঘোষণা ছাড়াই জনগণের বি’রু’দ্ধে যু’দ্ধ ঘোষণা করেছে। তারা মানুষকে নি’পীড়ন করছে। এ অবস্থায় আমাদের মূল টার্গেট হলো সরকারকে সরানো। শনিবার (১২ মা’র্চ) দুপুরে রাজধানীর গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, এই সরকারকে থামানো না গেলে তাদের দুর্বৃত্তায়নও থামবে না। সেই লক্ষ্যেই আম’রা সব রাজনৈতিক দলকে জাতীয় ঐক্যের আহ্বান জানাচ্ছি। যেভাবে ’৬৯, ’৭১ ও ’৮৯ সালে আম’রা ঐক্যবদ্ধ হয়েছিলাম। সেভাবেই আবারও ঐক্যবদ্ধ হয়ে এই সরকারের বি’রু’দ্ধে গণআ’ন্দোলন তৈরি করতে হবে।’

তিনি আরও বলেন, জনগণের কথা বলার অধিকার কেড়ে নিতে সরকার নতুন দুটি খসড়া নীতিমালা তৈরি করছে। বিগত ১৪-১৫ বছরে বাংলাদেশের রাজনীতিতে অনেক পরিবর্তন হচ্ছে। সেটা হলো যারা এই দীর্ঘ সময় ধরে ক্ষমতাসীন তারা দেশে ফ্যাসিবাদ কায়েম করেছে। তারা ভিন্ন মতের মানুষদের দমন করছে। মানুষের কথা বলার অধিকার কেড়ে নিয়েছে। লেখার স্বাধীনতা কেড়ে নিয়েছে। তার কারণ হলো, জনগণের কাছে এই সরকারের কোনো জবাবদিহিতা নেই।

এই সরকার আগে একটি ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন তৈরি করেছে। এখন তারা ফের একটি নীতিমালা প্রণয়ন করেছে; যা আরো ভ’য়াবহ এবং মা’রাত্মক। এই নীতিমালার ফলে তারা আমাদের কথা বলা বন্ধ করতে চায়। সুতরাং ভা’র্চুয়াল সভা বা কথা বলাও তারা বন্ধ করতে চাইছে। এসময় মানুষের বাকস্বাধীনতা রক্ষায় অবিলম্বে বিটিআরসি ও তথ্য মন্ত্রণালয় প্রস্তাবিত ২টি নীতিমালা এবং ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিলের দাবি জানান তিনি।

Back to top button