জাতীয়

ভোজ্যতেল নিয়ে তেলেসমাতি, খরচ বাড়াচ্ছে সরকারের উদ্যোগ!

ভোজ্যতেলের ওপর মূল্য সংযোজন কর প্রত্যাহার করার পরও কমেনি দাম। ব্যবসায়ীরা বলছেন, আন্তর্জাতিক বুকিং রেট এখনও কমেনি।

তেল নিয়ে এই তেলেসমাতির খেসারত দিতে হচ্ছে সাধারণ ক্রেতাদের।সয়াবিন তেলের উৎপাদন পর্যায়ে ১৫ শতাংশ এবং ভোক্তা পর্যায়ে ৫ শতাংশ কর প্রত্যাহার করার সরকারি ঘোষণার পর ব্যবসায়ীরা বলছেন, শুধু উৎপাদন ও সরবরাহ পর্যায়ে কর তুলে নিলে তাদের খরচ আরও বাড়বে। কারণ, আম’দানি পর্যায়ে যে কর রয়েছে, তা পরিশোধ করতে হবে। পরে উৎপাদন ও সরবরাহ পর্যায়ে রেয়াত নেওয়ার সুযোগ থাকবে না।

শনিবার (১২ মা’র্চ) খুচরা পর্যায়ে ৫ লিটার বোতলজাত সয়াবিন তেল আগের দামে অর্থাৎ ৮শ টাকায় বিক্রি করতে দেখা গেছে নগরের বিভিন্ন মুদি দোকানে। খাতুনগঞ্জের পাইকারি বাজারে কয়েকদিন ধরে প্রতি মণ সয়াবিন তেল ৬ হাজার ২শ টাকায় বিক্রি হলেও এদিন বিক্রি হয়েছে ৫ হাজার ৮শ-৯শ টাকায়।

চট্টগ্রাম কাস্টমস সূত্রে জানা যায়, ২০২০-২১ অর্থবছরে ৭ লাখ ৮৫ হাজার টন অ’পরিশোধিত সয়াবিন তেল আম’দানি হয়েছে। এছাড়া প্রায় ২৪ লাখ টন সয়াবিন বীজ থেকে ৪ লাখ ৩৩ হাজার টন তেল পাওয়া গেছে। শুধুমাত্র বিগত জানুয়ারি ও ফেব্রুয়ারি মাসে ব’ন্ড সুবিধায় আম’দানি করা হয় প্রায় ৯৩ হাজার টন অ’পরিশোধিত তেল। এছাড়া এ দুই মাসে বাজারজাত হয় ১ লাখ ৬৯ হাজার টন অ’পরিশোধিত সয়াবিন তেল। গত বছরের চেয়ে এবছর ৪৮ হাজার টন বেশি তেল আম’দানি করা হয়েছে। গত ৭ মা’র্চ পর্যন্ত পতেঙ্গার ৭টি ট্যাংক টার্মিনালে ১৪ হাজার টন অ’পরিশোধিত সয়াবিন তেল মজুত ছিল। পাশাপাশি দুই জাহাজে চট্টগ্রাম বন্দরে আসে ৩২ হাজার টন।

এদিকে ট্রেডিং করপোরেশন অব বাংলাদেশকে (টিসিবি) স্থানীয় বিভিন্ন কোম্পানি থেকে ভোজ্যতেল সরাসরি কেনার অনুমতি দেওয়া হয়েছে বলে জানা গেছে।

গত ৬ ফেব্রুয়ারি বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৮ টাকা বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নেয় বাণিজ্য মন্ত্রণালয়। এতে বোতলজাত প্রতি লিটার সয়াবিন তেলের দাম দাঁড়ায় ১৬৮ টাকা। আর বোতলজাত ৫ লিটার সয়াবিন তেলের দাম ৭৯৫ টাকা। এর আগে যা বিক্রি হয় ৭৬০ টাকায়। সর্বশেষ গত বছরের ১৯ অক্টোবর বোতলজাত সয়াবিন তেলের দাম লিটারপ্রতি ৭ টাকা বাড়িয়ে ১৬০ টাকা করা হয়। এরও আগে ২৭ মে সয়াবিন তেলের দাম লিটারে ৯ টাকা বাড়ানো হয়।

Back to top button