জাতীয়

দেশ এক গভীর সংকটে পতিত হচ্ছে

চাল-ডাল-তেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতির কারণে দেশ এক গভীর সংকটে পতিত হচ্ছে বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাপ মহাসচিব এম গো’লাম মোস্তফা ভুঁইয়া।

শনিবার (১২ মা’র্চ) নয়াপল্টনের যাদু মিয়া মিলনায়তনে ন্যাপের সাবেক চেয়ারম্যান জাতীয় নেতা মশিউর রহমান যাদু মিয়ার ৪৩তম মৃ’ত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি আয়োজিত স্ম’রণসভা ও দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা হিসেবে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক দুর্বৃত্তায়নের কারণে লুটেরা গোষ্ঠীর জন্ম হচ্ছে একের পর এক। ফলে দেশের রাজনীতি আজ দুর্বৃত্ত ও লুটেরাদের নিয়ন্ত্রণে চলে যাচ্ছে। এ অবস্থা থেকে পরিত্রাণের লক্ষ্যে প্রয়োজন মশিউর রহমান যাদু মিয়াদের মত মেধাবী রাজনৈতিক নেতৃত্ব।

তিনি বলেন, মশিউর রহমান যাদু মিয়াকে বাদ দিয়ে আমাদের গণতান্ত্রিক সংগ্রামের ইতিহাস রচনা সম্ভব নয়। বাংলাদেশের রাজনীতিতে তিনি মেধাবী ও দূরদর্শী রাজনীতিক হিসেবেই পরিচিত। আজীবন তিনি সংগ্রাম করেছেন গণমানুষের মুক্তির জন্য। সংগ্রামে তিনি কখনও পিছপা হননি।

ন্যাপ মহাসচিব বলেন, দুর্ভাগ্যজনক হলেও সত্যি ‘দেশে সিন্ডিকেট তৈরি করে কিছু মানুষ ব্যবসার নামে জনগণের পকেট কাটছে। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধি নিয়ে মন্ত্রীরা উল্টা-পাল্টা কথা বলেন। তখন প্রশ্ন জাগে তাহলে কি রাষ্ট্রটাই সিন্ডিকে’টের হাতে ব’ন্দি? বাংলাদেশ কি তাহলে সিন্ডিকে’টের দেশ হয়ে গেছে?

তিনি আরও বলেন, নীতি ছাড়া রাজনীতির কারেণে সমাজের সব ক্ষেত্রেই অধঃপতন ঘটেছে। ক’রো’না ভাই’রাস আমাদের আ’ক্রা’ন্ত করেছে, যখন বৈষম্য আমাদের আ’ক্রা’ন্ত করে, তখন লুটেরা গোষ্ঠী অর্থ আয় করেতে ব্যস্ত হয়ে পরেছে।

বাংলাদেশ ন্যাপের সাংগঠনিক সম্পাদক ও ঢাকা মহানগর ভা’রপ্রাপ্ত সভাপতি মো. কা’মাল ভুঁইয়ার সভাপতিত্বে আলোচনায় অংশ নেন লেবার পার্টি চেয়ারম্যান হাম’দুল্লাহ আল মেহেদী, এনডিপি মহাসচিব মো. মঞ্জুর হোসেন ঈসা, দলের ভাইস চেয়ারম্যান স্বপন কুমা’র সাহা, যুগ্ম মহাসচিব মো. মহসীন ভুইয়া, সাংগঠনিক সম্পাদক মিতা রহমান, মহানগর প্রচার সম্পাদক বাদল দাস, শ্রম বিষয়ক সম্পাদক হাবিবুর রহমান, না’রী বিষয়ক সম্পাদক আনোয়ারা বেগম প্রমুখ।

Back to top button