জাতীয়

কনে দেখার দিনই সড়কে ঝরলো প্রকৌশলীর প্রা’ণ

প্রকৌশলী মিজানুর রহমানের (২৬) জন্য শনিবার (১২ মা’র্চ) বিকেলে পাত্রী দেখতে যাওয়ার কথা ছিল। কিন্তু তার আগেই দুপুরে এক সড়ক দু’র্ঘ’ট’নায় মৃ’ত্যু হয়েছে তার।

মিজানুর রহমান রাজশাহীর বাগমা’রা উপজে’লার গোবিন্দপাড়া ইউনিয়নের কোটগ্রামের গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত সে’না কর্মক’র্তা আকরাম আলীর ছে’লে। এ ঘটনায় তার পরিবারে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

জানা গেছে শনিবার দুপুরে রাজশাহীর মোহনপুরে পিকআপ ভ্যানের ধাক্কায় ঘটনাস্থলেই তিনি নি’হ’ত হন। পু’লিশ ওই পিকআপ ভ্যানটিকে আ’ট’ক করেছে।

নি’হ’তের পরিবার জানিয়েছে, মিজানুর রহমান এ বছর মৌলভীবাজার পলিটেকনিক ইনস্টিটিউট থেকে রেফ্রিজারেশন অ্যন্ড এয়ার কন্ডিশনিং ইঞ্জিনিয়ারিং পাস করেন। তিন ভাই-বোনের মধ্যে সবার বড় ছিলেন তিনি। বিয়ের জন্য বিকেলে কনে দেখতে যাওয়ার কথা ছিল। এ জন্য কনেপক্ষ ওই বাড়িতে আয়োজনও করে। সেখানে যাওয়ার জন্য চাচাতো ভাইয়ের কাছে থাকা মোটরসাইকেল আনতে গিয়ে সড়ক দু’র্ঘ’ট’নায় প্রা’ণ হারান মিজানুর।

পরিবারের বরাত দিয়ে মোহনপুর থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) তৌহিদুল ই’স’লা’ম বাংলানিউজকে বলেন- মিজানুর রহমান মোহনপুরে তার চাচাতো ভাইয়ের কাছে থাকা মোটরসাইকেল নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন। উপজে’লার রাজশাহী-নওগাঁ মহাসড়কের বড়াইল উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা একটি পিকআপ তার মোটরসাইকেলকে ধাক্কা দেয়। এতে সড়কেই ছিট’কে পড়েন তিনি এবং মা’থায় গুরুতর আ’ঘাত পান। উ’দ্ধা’রের আগে অ’তিরিক্ত র’ক্ত ক্ষরণে ঘটনাস্থলেই তার মৃ’ত্যু হয়।

পরে খবর পেয়ে পু’লিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ম’রদেহ উ’দ্ধা’র করে রাজশাহী মেডিক্যাল কলেজের (রামেক) ম’র্গে পাঠায়। ময়নাত’দ’ন্তের পর বিকেলে পরিবারের কাছে ম’রদেহ হস্তান্তর করা হয়েছে। পু’লিশ পিকআপ ভ্যানটি আ’ট’ক করেছে। এ ঘটনায় থা’নায় অ’পমৃ’ত্যু মা’ম’লা হবে বলেও জানান-মোহনপুর থা’নার এই পু’লিশ কর্মক’র্তা।

Back to top button