আন্তর্জাতিক

বাংলাদেশে ক্ষেপণাস্ত্র রক্ষণাবেক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের খবর, যা বললেন চীনা রাষ্ট্রদূত

বাংলাদেশে চীনের ক্ষেপণাস্ত্র রক্ষণাবেক্ষণ কেন্দ্র স্থাপনের যে খবর প্রকাশিত হয়েছে- সে বিষয়ে ঢাকায় নিযু’ক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং বলেছেন, চীন কখনো অন্য কোনো দেশের ভেতর সাম’রিক ঘাঁটি তৈরি করে না। তবে কোনো দেশ চাইলে সাম’রিক সরঞ্জাম রক্ষণাবেক্ষণে চীন সহায়তা দিয়ে থাকে।

রোববার ঢাকার একটি হোটেলে ঢাকায় চীন দূতাবাসের আয়োজনে ‘স্প্রিং ডায়ালগ উইথ চায়না’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি একথা বলেন।

গত শুক্রবার জা’পানি সংবাদমাধ্যম নিকেই এশিয়া বাংলাদেশে চীন একটি ক্ষেপণাস্ত্র রক্ষণাবেক্ষণ হাব নির্মাণ করতে যাচ্ছে বলে একটি প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে। ওই প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ২০১১ সালে চীনের সরবরাহ করা ভূমি থেকে আকাশে আ’ঘাত হানতে সক্ষম ক্ষেপণাস্ত্রের রক্ষণাবেক্ষণের জন্য একটি হাব নির্মাণের প্রস্তুতি নিচ্ছে চীন। আর তাতে দুঃশ্চিন্তায় পড়েছে ভা’রত। এই স্থাপনা নির্মাণে চীনা কোম্পানি ভ্যানগার্ড সহযোগী হিসেবে থাকছে। ঢাকা ও বেইজিংয়ের তরফে এ সংক্রান্ত চুক্তির বিষয় ঘোষণা করেনি। তবে দুই পক্ষ এ বিষয়ে সমঝোতায় পৌঁছেছে।’

এ বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের মুখে রাষ্ট্রদূত খবরটি সত্যতা স্বীকার কিংবা অস্বীকার কোনোটাই করেননি। তিনি বলেন, ‘চীন নিজ দেশের বাইরে বাংলাদেশ কিংবা অন্য কোনো দেশেই সাম’রিক স্থাপনা বা ঘাঁটি নির্মাণ করবে না। যদি বাংলাদেশ সরকার অনুরোধ করে মেরামত কারখানার মতো কিছু করার, সেটা ভিন্ন ব্যাপার।’

চীনা রাষ্ট্রদূত আরও বলেন, ‘আমি এ বিষয়ে প্রকাশিত খবরটি নিশ্চিত করতে পারছি না। আমাকে এটা যাচাই করতে হবে।’

Back to top button