জাতীয়

ছে’লে-মে’য়ের স্কুলের ফি দিতে না পেরে বাবার আত্মহ’ত্যা

রাজধানীতে এক টেইলার্স মালিকের ঝুলন্ত ম’রদেহ উ’দ্ধা’র করেছে পু’লিশ। রবিবার (১৩ মা’র্চ) তার ম’রদেহ উ’দ্ধা’র করা হয়। নি’হ’তের নাম মো. মহসিন রেজা (৩৫)। তিনি মিরপুরের পীরেরবাগ পাকা ম’স’জিদ এলাকার বাসিন্দা। এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ধানমন্ডি থা’নার উপপরিদর্শক (এসআই) মো. মুনসুর আহমেদ। তিনি বলেন, ওই দিন দুপুর সোয়া একটার দিকে তার ধানমন্ডির প্রতিষ্ঠান থেকে (বাসা নম্বর ৬৯/৩, রোড নম্বর ৭/এ) ম’রদেহ উ’দ্ধা’র করি। সুরতহাল প্রতিবেদন শেষে ময়নাত’দ’ন্তের জন্য বিকেলে ম’রদেহ ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতা’লের ম’র্গে পাঠানো হয়েছে।

এক ছে’লে এক মে’য়ে নিয়ে সুখের সংসার ছিল আমা’র ভাইয়ের। মিরপুরের পীরেরবাগে তার ঘর ছিল এক টুকরো বেহেস্ত। সবকিছু ঠিকমতো চলছিল। দেশে ক’রো’না এল। ভাইয়ের ধানমন্ডির টেইলার্সটি বন্ধ রাখতে হলো। সংসারে শুরু হলো অভাব। সে সময় সুদে টাকা ধার করে সংসার চালিয়েছেন তিনি। এরপর ক’রো’না নিয়ন্ত্রণে এলে টেইলার্স খুলতে পেরেছেন। কিন্তু সুদের টাকা আর শোধ করতে পারেননি। এমনকি ছে’লে-মে’য়ের স্কুলের ফিও দিতে পারছিলেন না। আজ সাধের টেইলার্সে তার ঝুলন্ত ম’রদেহ পাওয়া গেল এমন বেদনাদায়ক কথাগুলো বলছিল নি’হ’তের ভাই মোহাম্ম’দ আলী।

নি’হ’ত রেজার ভাই মোহাম্ম’দ আলী জানান, রেজা মিরপুরের পীরেরবাগ পাকা ম’স’জিদ এলাকার ৭৮/১ এক নম্বর বাসায় পরিবার নিয়ে থাকতেন। তার ছে’লে নাঈম নবম শ্রেণিতে আর মেয়ে নাই’মা সপ্তম শ্রেণির শিক্ষার্থী। রেজার গ্রামের বাড়ি সিরাজগঞ্জ জে’লার শাহ’জাদপুর থা’নার চিতা পুকুরিয়া গ্রামে। তার বাবার নাম মৃ’ত আলাউদ্দিন। নি’হ’তের আত্মীয়-স্বজনের কাছ থেকে জানা গেছে, সকাল সোয়া নয়টার মিরপুরের পীরেরবাগের বাসা থেকে দোকানে এসেছিলেন রেজা।

 

Back to top button