জাতীয়

অ’তিরিক্ত তেল মজুত করে জ’রিমানা গুনলেন অর্ধলাখ

নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের চৌমুহনীতে অ’ভিযান পরিচালনা করে ৮৮টি ড্রামে ১৮ হাজার লিটার সয়াবিন ও পামঅয়েল মজুত করা অবস্থায় পেয়েছে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। এ ঘটনায় মেসার্স বিজয়া ভাণ্ডার নামের এক প্রতিষ্ঠানকে ৫০ হাজার টাকা জ’রিমানা করা হয়েছে।

সোমবার (১৪ মা’র্চ) দুপুরে চৌমুহনীর তুতামিয়ার গলির প্রতিষ্ঠানের মালিক রাজেশ বণিককে এ জ’রিমানা করা হয়।নোয়াখালী পু’লিশ সুপার (এসপি) মো. শহীদুল ই’স’লা’ম জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি জানান, দুপুর পৌনে ২টার দিকে গো’প’ন সংবাদের ভিত্তিতে মেসার্স বিজয়া ভাণ্ডারে অ’ভিযান চালায় জে’লা গোয়েন্দা পু’লিশ (ডিবি)। অ’ভিযানে ৮৮টি ড্রামে ১৮ হাজার লিটার ভোজ্যতেল তেল মজুত করা অবস্থায় পাওয়া যায়। পরে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের নোয়াখালীর সহকারী পরিচালক মো. কাউছার মিয়াকে খবর দেওয়া হয়।

নোয়াখালী ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক মো. কাউছার মিয়া বলেন, অ’ভিযোগের সত্যতা পেয়ে প্রতিষ্ঠানের মালিককে তাৎক্ষণিকভাবে ৫০ হাজার টাকা জ’রিমানা করা হয়। সেইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটিকে সতর্ক করে দেওয়া হয়েছে।

এসময় বেগমগঞ্জ থা’না পু’লিশ ছাড়াও জে’লা কৃষি বিপণনের সহকারী কর্মক’র্তা মো. নুরুল ই’স’লা’ম, জে’লা জনস্বাস্থ্যের পরিদর্শক মো. শওকত আলীসহ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের জে’লা কার্যালয়ের অন্যান্য কর্মক’র্তারা উপস্থিত ছিলেন।

Back to top button