আন্তর্জাতিক

ভা’রতে হিজাব নিয়ে হা’ই’কো’র্টের রায়ের বি’রু’দ্ধে আপিল হচ্ছে

ভা’রতে হিজাব মা’ম’লায় হা’ই’কো’র্টের দেওয়া রায়ে সন্তুষ্ট নন মা’ম’লাকারীরা। মঙ্গলবার হা’ই’কো’র্টের দেওয়া রায়কে চ্যালেঞ্জ করে সুপ্রিমকোর্টে যাচ্ছেন তারা। খবর আনন্দবাজার পত্রিকার।

আ’দা’লতের রায়কে স্বাগত জানিয়েছে বিজেপি। তবে রায় নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন ভা’রতের একাধিক রাজনীতিবিদ। কর্নাট’কের মুখ্যমন্ত্রী বাসবরাজ মুম্বাই রাজ্যে সম্প্রীতি ও আইনশৃঙ্খলা রক্ষার আবেদন জানিয়েছেন।

কর্নাট’ক হা’ই’কো’র্ট বলেছে, হিজাব পরা ই’স’লা’ম ধ’র্মবিশ্বা’সে বাধ্যতামূলক ধ’র্মীয় অনুশীলন নয়, তাই এ ক্ষেত্রে ভা’রতীয় সংবিধানের ২৫ নম্বর ধারার রক্ষাকবচ প্রযোজ্য নয়।

পাশাপাশি স্কুল পরিচ্ছদের অঙ্গ হিসেবে হিজাব বা অন্য কোনো আবরণ বা উত্তরীয় নিষিদ্ধ করার কর্নাট’ক সরকারের সিদ্ধান্তকেও শিক্ষার্থীদের মৌলিক অধিকারের খর্ব হিসেবে দেখছে না হা’ই’কো’র্ট।

ফলে স্কুল বা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে হিজাব পরে আসা নিষিদ্ধই রইল। হা’ই’কো’র্টের এই রায়ের বি’রু’দ্ধে এবার সুপ্রিমকোর্টে আবেদন করতে চলেছেন আ’ন্দোলনকারী শিক্ষার্থীরা।

গত ১০ ফেব্রুয়ারি অন্তর্বর্তী রায়ে হা’ই’কো’র্ট জানিয়েছিল, যতদিন না পর্যন্ত চূড়ান্ত রায় দেওয়া হচ্ছে, ততদিন শিক্ষার্থীরা গেরুয়া উত্তরীয়, হিজাব পরে এবং ধ’র্মীয় পতাকা বা ওই জাতীয় কিছু নিয়ে ক্লাসরুমে প্রবেশ করতে পারবে না।

গত ১১ ফেব্রুয়ারি হা’ই’কো’র্টের দেওয়া অন্তর্বর্তী রায়কে চ্যালেঞ্জ করে দ্রুত শুনানির আবেদন জানিয়ে সুপ্রিমকোর্টের দ্বারস্থ হন কয়েকজন আবেদনকারী। কিন্তু সুপ্রিমকোর্ট মা’ম’লা’টি নিতে অসম্মত হন।কারণ হিসেবে সুপ্রিমকোর্ট জানান, হা’ই’কো’র্টে মা’ম’লা’টি চলছে। এ অবস্থায় তাতে হস্তক্ষেপের কোনো কারণ নেই।

এ বছরের শুরু থেকে কর্নাট’কের স্কুল-কলেজে হিজাব পরে ঢোকা নিয়ে বিতর্ক তৈরি হয়। উদুপির একটি কলেজে কয়েকজন ছা’ত্রী হিজাব পরে আসায় ক্লাস করতে দেওয়া হয়নি। এর পর ক্রমশ হিজাব বিতর্ক ছড়িয়ে পড়ে গোটা রাজ্যে। হিজাবের পাল্টা হিসেবে গৈরিক উত্তরীয় পরতে দেওয়ার দাবি তুলে পথে নেমে যায় কয়েকটি সংগঠন।

 

Back to top button