রাজনীতি

জনগণের নয়, ক্রয়ক্ষমতা বেড়েছে যুবলীগ-ছাত্রলীগের

‘জনগণের ক্রয়ক্ষমতা আগের চেয়ে বৃদ্ধি পেয়েছে’— আওয়ামী লীগের মন্ত্রী-এমপিদের এমন বক্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্মমহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেছেন, সাধারণ জনগণের ক্রয় ক্ষমতা বাড়েনি। ক্রয় ক্ষমতা বেড়েছে ওবায়দুল কাদের-হাছান মাহমুদের, বেড়েছে যুবলীগ-ছাত্রলীগের। জনগণের ক্রয় ক্ষমতা বাড়লে টিসিবির ট্রাকের পেছনে এত বড় লাইন হতো না। এসব কথা বলে মন্ত্রীরা জনগণের সঙ্গে রসিকতা করছেন।

বুধবার দুপুরে জাতীয়তাবাদী মহিলা দলের উদ্যোগে রাজধানীর শাহবাগে নিত্যপণ্যের দাম বৃদ্ধির প্রতিবাদে লিফলেট বিতরণকালে প্রধান অ’তিথির বক্তব্যে রিজভী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী কেন ক্ষমতা ছাড়ছেন না, এসময় তার কারণও জানান রিজভী। তার ভাষায়, ‘প্রধানমন্ত্রী বিএনপিকে নিয়ে অনেক সবক দিচ্ছেন। কেন উনি (প্রধানমন্ত্রী) ক্ষমতা ছাড়ছেন না? কেন উনি গদি ছাড়ছেন না? কারণ উনি ক্ষমতা থেকে সরে গেলে আওয়ামী লীগের সভাপতির পদ দলটির সিনিয়র নেতারা দখল করবেন। এই ভ’য়ে তিনি জোর করে গণতন্ত্রকে কবর দিয়ে বসে আছেন। ’

বিএনপির সিনিয়র এই যুগ্ম-মহাসচিব বলেন, আজকে গণমাধ্যমে আসছে মানুষ দুপুর বেলা ভাতের বদলে বন রুটি ও কলা খেয়ে থাকছে। একেবারে দুর্ভিক্ষের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে দেশ। জনগণকে অনিদ্রায় রেখে সরকার শুধু নিজের ও নিজের লোকদের ভালো করছে। নিজের লোকেরা বিদেশে টাকা পাচার, ডুপ্লেক্স বাড়ি করার ব্যবস্থা করছেন। আর দেশের মানুষ কোন রকম ভাবে কলা-রুটি খেয়ে বেঁচে থাকে। তাও আবার সরকারি চাকরিজীবী মধ্যম আয়ের মানুষ। আগে যারা মেসে থাকতো তারা একটা ডিম ভেজে ভাত খেত, সেই ডিম ভেজে ভাগ করার মত সাম’র্থ্য এখন মধ্যম আয়ের মানুষের নাই। নিম্ন আয়ের মানুষের কথা বাদই দিলাম।

আওয়ামী লীগের উদ্দেশে বিএনপির এই নেতা বলেন, এরা দুর্ভিক্ষের বিলাসবহুল অবস্থা দেখতে চায়। নিজেরা ভালো থেকে দুর্ভিক্ষের বিলাসবহুল রূপান্তর করতে চায়। তাদেরতো খাবারের কোন অভাব নেই। তারা যখনই ক্ষমতায় এসেছে রাস্তা, ফুটপাতে ডাস্টবিন থেকে খাবার তুলে মানুষ খেয়েছে। এখন সেই পরিণতি আম’রা আবার দেখছি এই সরকারের আমলে।

লিফলেট বিতরণকালে বিএনপির স্বাস্থ্য বিষয়ক সম্পাদক ডা. রফিকুল ই’স’লা’ম, মহিলা দলের কেন্দ্রীয় সভাপতি আফরোজা আব্বাস, যুবদল ঢাকা মহানগর দক্ষিণের আহ্বায়ক গোলাম মওলা শাহিন, সদস্য সচিব খন্দকার এনামুল হক এনাম, যুগ্ম-আহ্বায়ক রবিউল ই’স’লা’ম নয়ন, মহানগর পূর্ব ছাত্রদলের আহ্বায়ক খালিদ হাসান জ্যাকি, সদস্য সচিব আলামিন হোসেন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

Back to top button