জাতীয়

নাপা সিরাপ নয়, মায়ের প’র’কীয়ায় প্রা’ণ যায় সেই দুই শি’শুর

অবশেষে ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় নাপা সিরাপ খেয়ে দুই শি’শুর মৃ’ত্যুর ঘটনাটি পরিক’ল্পি’ত হ’ত্যাকা’ণ্ড বলে পু’লিশ জানিয়েছে। এ ঘটনায় শি’শুর মা লিমা বেগমকে (৪০) আজ বৃহস্পতিবার ১৭ মা’র্চ ভোরে গ্রে’প্তা’র করা হয়েছে। ইতোমধ্যে তাকে জবানব’ন্দির জন্য কোর্টে পাঠিয়েছে পু’লিশ।

এ ব্যাপারে জে’লা পু’লিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মক’র্তা জানিয়েছেন, প’র’কীয়ায় আসক্ত হয়ে অ’ত্যন্ত সুকৌশলে দুই শি’শুকে নাপা সিরাপ খাইয়ে হ’ত্যা করে মা লিমা বেগম। তার কথিত প্রে’মিকের সঙ্গে বিয়েসহ যাবতীয় কার্যক্রম সম্পন্ন হওয়ার কথা রয়েছে। এ ঘটনা পু’লিশের কাছে বিস্তারিতভাবে বর্ণনা করেছেন লিমা।

এদিকে দুটি শি’শুকে নাপা সিরাপ খাইয়ে হ’ত্যার ঘটনায় দুপুরে জে’লা পু’লিশের পক্ষ থেকে জরুরি সংবাদ সম্মেলন ডা’কা হয়েছে। এর আগে গত ১৩ মা’র্চ ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে ‘নাপা সিরাপ’ সেবন করে একই পরিবারের দুই শি’শুর মৃ’ত্যুর ঘটনায় দেশের সব পাইকারি ও খুচরা ফার্মেসি পরিদর্শন করে ওই ওষুধ পরীক্ষার নির্দেশ দিয়েছে ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর। সেই সঙ্গে পরীক্ষার প্রতিবেদন ন্যাশনাল কন্ট্রোল ল্যাবরেটরিতে পাঠানোর জন্যও বলা হয়েছে।

সেই বি’জ্ঞ’প্তিতে বলা হয়েছে, গত ১২ মা’র্চ দেশের বিভিন্ন প্রিন্ট ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় প্রকাশিত খবরের ভিত্তিতে জানা যায় যে, দেশের অন্যতম প্রধান ফার্মাসিউটিক্যালস-এর উৎপাদিত নাপা সিরাপ (প্যারাসিটামল ১২০মিগ্রা./৫ মি.লি.) ব্যাচ নং- ৩২১১৩১২১, উৎপাদন তারিখ: ১২/২০২১, মেয়াদ উত্তীর্ণ তারিখ: ১১/২০২৩ নামীয় ওষুধটি সেবন করে ব্রাহ্মণবাড়িয়া জে’লার আশুগঞ্জ উপজে’লার দুর্গাপুর ইউনিয়নের দুর্গাপুর গ্রামে একই পরিবারের ২ শি’শু মৃ’ত্যুবরণ করেছে।

এমতাবস্থায় ঔষুধ প্রশাসন অধিদপ্তরের সব বিভাগীয় ও জে’লা কার্যালয়ে কর্ম’রত কর্মক’র্তাকে স্ব-স্ব নিয়ন্ত্রণাধীন এলাকায় অবস্থিত পাইকারি ও খুচরা ফার্মেসি পরিদর্শন করে ওই পদের নমুনা পরীক্ষা ও বিশ্লেষণ করে প্রতিবেদন ন্যাশনাল কন্ট্রোল ল্যাবরেটরিতে পাঠানোর নির্দেশ দেওয়া হলো। পরবর্তীতে নাপা সিরাপ পরীক্ষা করে তার মধ্যে কোনো ক্ষতিকর উপাদান পায়নি ঔষধ প্রশাসন অধিদপ্তর।

 

Back to top button