জাতীয়

সিম কার্ড পাল্টে ফেলেছিলেন রিমা: সেই দুই শি’শুর বাবা

ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় প্রে’মিককে বিয়ে করতে বিষ মিশ্রিত মিষ্টি খাইয়ে দুই শি’শুসন্তান ইয়াছিন খান (৭) এবং মোরসালিন খানকে (৫) হ’ত্যা করে মা রিমা আক্তার। ওই মিষ্টি এনে দিয়েছিল রিমা’র প্রে’মিক সফিউল্লাহ ওরফে সোফাই মিয়া। বৃহস্পতিবার (১৭ মা’র্চ) বিকালে প্রেস ব্রিফিংয়ে জে’লা পু’লিশ সুপার মুহাম্ম’দ আনিসুর রহমান এসব তথ্য জানিয়েছেন।

এদিকে, দুই শি’শুর মৃ’ত্যুর আগে ও পরে তাদের মা রিমা বেগম দুইবার সিম কার্ড পাল্টে ফেলেছেন বলে দাবি করছেন তাদের বাবা মো. ইসমাইল হোসেন সুজন।

এর আগে বৃহস্পতিবার ভোরে শি’শুদের বাবা ইসমাইল হোসেন সুজন রিমা এবং তার কথিত প্রে’মিক সফিউল্লাকে সফুকে দায়ী করে আশুগঞ্জ থা’নায় হ’ত্যা মা’ম’লা দায়ের করেছেন।

সফিউল্লাহ সফু আশুগঞ্জের খৈয়ালা এলাকার এস আলম অটো রাইস মিলের সর্দার হিসেবে কর্ম’রত ছিলেন। সেখানে কাজ করতে গিয়েই তার সঙ্গে রিমা’র ‘প’র’কীয়া স’ম্প’র্ক’ গড়ে উঠে বলে দাবি করছে পু’লিশ।

সুজন বলেন, ‘গত বৃহস্পতিবার রাতে পু’লিশ যখন আমা’র ছে’লেদের লা’শ নিয়ে যাচ্ছিল, তখন আমাদের একটা নাম্বার নিছিল। রবিবার পু’লিশ আবার নাম্বার চাইলে রিমা বলে সিম তো পাইতেসি না।’

সিলেটের একটি ইটভাটায় কর্ম’রত সুজন গত কয়েক মাস আগের একটি ঘটনা স্ম’রণ করে বলেন, ‘সিলেট যাওয়ার সময় রিমাকে একটা নম্বরটা দিয়েছিলাম। এটা ছিল মায়ের। মাস দুয়েক পর রিমা বলে, নম্বরটা সর্দারে পাল্টায় ফেলেছে। নাম্বার কেন পাল্টাতে হইল, জানতে চাইলে রিমা বলে, কত জনে নাম্বারটা জেনে গেছে। তাই সর্দার আমা’রে নতুন নাম্বার দিসে।’

সুজন বলেন, পরের সেই সিমটি ছে’লেরা মা’রা যাওয়ার সময়ও ব্যবহার করতেন রিমা। ছে’লেরা মা’রা যাওয়ার সর্দার সফু আনোয়ারা বেগম নামে এক না’রীকে দিয়ে সেই সিম কার্ডও নিয়ে গেছে। আমা’র কেমন স’ন্দেহ হয়। নানা সূত্রে জানতে পারি, তাদের স’ম্প’র্ক চলতাসে। তাই আমি মা’ম’লা দায়ের করছি।

 

Back to top button