জাতীয়

সয়াবিন তেলের দাম নিয়ে ক্রেতাকে পে’টালো দোকানদার

সয়াবিন তেলের অ’তিরিক্ত মূল্য চাওয়ায় প্রতিবাদ করতে গিয়ে দোকানদারের মা’রধরের শিকার হয়েছেন জাকির হোসেন (৪৩) নামের এক ক্রেতা। শুক্রবার (১৮ মা’র্চ) বিকেল সোয়া ৫টার দিকে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদরের ফুলবাড়িয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। মা’রধরের শিকার জাকির হোসেন জে’লার সরাইল উপজে’লার তেলিকান্দির খোরশেদ মিয়ার ছে’লে। তিনি বেসরকারি একটি প্রতিষ্ঠানে চাকরি করার সুবাদে পরিবার নিয়ে জে’লা শহরের ফুলবাড়িয়ায় বাসা ভাড়া নিয়ে বসবাস করেন।

জাকির হোসেনের জানান, জুমা’র নামাজের আগে বাসার পাশের ওই দোকান থেকে এক লিটার সয়াবিন তেল বাকিতে নেন জাকির হোসেন। বিকেলে আসর নামাজের পর তেলের মূল্য পরিশোধ করতে যান। দোকানদার শাফিউদ্দিন তেলের দাম ১৮০ টাকা পরিশোধ করতে বলেন। জাকির হোসেন দোকানদারকে বলেন, বোতলে লেখা আছে ১৬০ টাকা, আপনি ১৮০ টাকা কেন নেবেন?

এ কথা বলার পর দোকানদার দোকানে থাকা একটি তেলের বোতল হাতে নেন। সেই বোতলে মূল্য লেখা ছিল মাত্র ১৬ টাকা। ঘষামাজা করে শূন্য উঠিয়ে ফেলা হয়েছে। এনিয়ে জাকির হোসেন আবারো প্রতিবাদ করলে দোকানদার চেয়ার তুলে তাকে মা’রধর করেন। পরে স্থানীয়রা জাকির হোসেনকে উ’দ্ধা’র করে ২৫০ শয্যাবিশিষ্ট জেনারেল হাসপাতা’লে চিকিৎসার জন্য পাঠিয়ে দেন। ঘটনার পর দোকান বন্ধ করে দোকানদার পালিয়ে গেছেন।

জাকির হোসেন বলেন, বোতলে মূল্য ১৬০ লেখায় ঘষামাজা করে শূন্য উঠিয়ে ফেলা হয়েছে। যাতে করে তিনি বেশি দামে বিক্রি করতে পারেন। আর এর প্রতিবাদ করামাত্র তিনি আমাকে চেয়ার তুলে মা’রেন। এ ঘটানার পর থেকে দোকানদার শাফিউদ্দিন গা ঢাকা দিয়েছে বলে জানা যায়। এ বিষয়ে ব্রাহ্মণবাড়িয়া সদর মডেল থা’নার পরিদর্শক (ত’দ’ন্ত) সোহরাব আল হোসাইন জাগো নিউজকে বলেন, বিষয়টি আম’রা জেনেছি। হাসপাতা’লে পু’লিশ পাঠানো হয়েছে। লিখিত অ’ভিযোগ পেলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

Back to top button