জাতীয়

তরুণীকে অমানবিক নি’র্যা’তনের ভিডিও ভাই’রাল

যশোরে এক তরুণীকে অমানবিক নি’র্যা’তনের একটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ভাই’রাল হয়েছে। এ ঘটনায় অ’ভিযু’ক্ত ইউপি সদস্যসহ ৪ জনকে গ্রে’প্তা’র করেছে পু’লিশ।

অ’নৈ’তিক কার্যকলাপের অ’ভিযোগ এনে গত ১৫ মা’র্চ সন্ধ্যা ৭টার দিকে যশোর সদর উপজে’লার চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের আব্দুলপুর গ্রামে একটি দোকানে ওই তরুণীর ওপর নি’র্যা’তন চালান স্থানীয় ইউপি সদস্য আনিচুর রহমান ও তার সহযোগীরা।। সম্প্রতি এর দুটি ভিডিও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে পড়েছে। এতে সাধারণ মানুষের মাঝে ক্ষোভ বিরাজ করছে।

ভুক্তভোগী তরুণী বলেন, ১৫ মা’র্চ সন্ধ্যার পর পার্শ্ববর্তী এনায়েতপুর গ্রামে অনুষ্ঠিত ওয়াজ মাহফিল থেকে বন্ধু সাঈদের সঙ্গে সাইকেলে বাড়ি ফিরছিলেন। পথিমধ্যে কয়েকজন তাদের রাস্তায় গতিরোধ করে। এ সময় তারা আমাকে দুশ্চরিত্র আখ্যা দিয়ে আ’ট’কে মা’রপিট করে। এতো মা’রছে যে আমি ঠিকমত হাঁটতে পারছি না। আমা’র সারা শরীরে কালচে দাগ পড়ে গেছে। ব্যথা সহ্য হচ্ছে না।

ভুক্তভোগী তরুণী আরও বলেন, আমাকে আনিচুর মেম্বার, আইয়ুব আলী, খোকন ও ভুট্টোসহ কয়েকজন মা’রপিট করে। তারা আমা’র কাছে থাকা টাকা, মোবাইল ফোন ও গলায় থাকা স্বর্ণের চেন ছিনিয়ে নেয়। মা’রপিটের খবর পেয়ে বাড়ির লোকজন এসে আমাকে ছাড়িয়ে আনে এবং হাসপাতা’লে ভর্তি করে।

ভুক্তভোগী তরুণীর বন্ধু পার্শ্ববর্তী বাগযাঙ্গা সরদার পাড়ার বাসিন্দা সাঈদ হোসেন বলেন, রাত হয়ে যাওয়ায় তাকে বাড়িতে পৌঁছে দিতে বলে। আমি তাকে সাইকেলে করে আব্দুলপুর গ্রামে নিয়ে যায়। এ সময় পথে কয়েকজন আমাদের গতিরোধ করে নাম পরিচয় জানতে চায়। পরিচয় দেওয়ার পর তারা ইউপি মেম্বারকে ডেকে আনে। এরপর গ্রামের একটি দোকানে ঢুকিয়ে আমাদের মা’রপিট শুরু করে। ওরা আমা’র বান্ধবীকে অনেক মা’রপিট করে। আমাকেও মে’রেছে। আমা’র কানে আ’ঘাত লেগেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই।

ভুক্তভোগী তরুণীর মা বলেন, বন্ধুর সঙ্গে বাড়ি ফেরা কী এমন অ’প’রা’ধ? তারাতো আমাদের ডেকে বলতে পারত। কিন্তু কীভাবে নি’র্যা’তন চালিয়েছে। মেয়ের শরীর না দেখলে কেউ বুঝতে পারবে না। ফেসবুকে আমা’র মেয়ের মা’রপিটের ভিডিও ছড়িয়ে গেছে। আমা’র মেয়ের সম্মান আর থাকল না। আনিচুর মেম্বারের বউ এখন বলে বেড়াচ্ছে মেয়েটারে মে’রে ফেললেই ভালো হতো।

আব্দুলপুর গ্রামে গিয়ে দেখা যায়, ইউপি মেম্বার আনিচুর রহমানের প্রভাবের কারণে গ্রামের কেউ এ বিষয়ে কথা বলতে রাজি হননি।স্থানীয় কয়েকজন গৃহবধূ বলেন, অ’প’রা’ধ করলেও এমন নি’র্যা’তন করা ঠিক হয়নি। আম’রা মেয়েটির শরীর দেখেছি সারা শরীরে কালছে হয়ে গেছে। সুন্দর মেয়েটা মা’রপিটের কারণে একেবারে কালো হয়ে গেছে।

এ বিষয়ে চুড়ামনকাটি ইউনিয়নের চেয়ারম্যানের দাউদ হোসেন বলেন, নির্যাতিত মেয়েটি, তার বাবা-মাসহ কয়েকজন আমা’র কাছে বিচার নিয়ে এসেছিল। আমি মেয়েটির কয়েকটি আ’ঘাতের চিহ্ন দেখেছি। আমা’র জীবদ্দশায় আমি কখনো এমন নি’র্যা’তন দেখিনি। যে পরিমাণ মে’রেছে কোনো সভ্য মানুষ এভাবে মা’রতে পারে না। যে কারণে আমি তাদের আইনের দ্বারস্থ হতে পরাম’র্শ দিয়েছি। আমিও এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার হোক সেই প্রত্যাশা করি।

এদিকে শুক্রবার নি’র্যা’তনের ভিডিও ভাই’রাল হওয়ার পর ভুক্তভোগীর বাবা বাদী হয়ে ৪ জনের নাম উল্লেখ করে মা’ম’লা করেন। এরপর রাতিই অ’ভিযান চালিয়ে ইউপি সদস্য আনিচুর রহমানসহ চারজনকে গ্রে’প্তা’র করেছে গোয়েন্দা পু’লিশ।যশোর কোতোয়ালি মডেল থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) তাজুল ই’স’লা’ম বলেন, ভুক্তভোগীর বাবা থা’নায় এসে ৪ জনের নামে মা’ম’লা করেছেন। মা’ম’লা পাওয়ার পর শুক্রবার সারারাত অ’ভিযান চালিয়ে ইউপি সদস্য আনিচুর রহমান, তার সহযোগী ভুট্টো, আজিম আলী ও তৌহিদ হাসানকে গ্রে’প্তা’র করা হয়। আজ তাদের আ’দা’লতে সোপর্দ করা হবে।

Back to top button