রাজনীতি

জনগণের ওপর ক্ষোভ ঝাড়লেন আমীর খসরু

বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী বলেছেন, দেশের জনগণের মধ্যে শ’ঙ্কা কাজ করছে, আগামী নির্বাচন সুষ্ঠু হবে কিনা। জনগণ ভোট দিয়ে তাদের পছন্দমতো প্রতিনিধি বানাতে পারবেন কি না। জীবনের নিরাপত্তা, সুষ্ঠু বিচার ব্যবস্থা সবকিছু নির্ভর করছে আগামী নির্বাচনের ওপর। এ অবস্থায় নির্বাচন সুষ্ঠু না হলে দেশে এক ভ’য়ংকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হবে।

শনিবার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এক শোকসভা ও দোয়া মাহফিলে তিনি এসব কথা বলেন।বিএনপির সাবেক মহাসচিব খোন্দকার দেলোয়ার হোসেন এবং স্থায়ী কমিটির সাবেক সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহম’দের মৃ’ত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে স্বাধীনতা অধিকার আ’ন্দোলন।

এ সময় ক্ষোভ ঝেড়ে আমীর খসরু বলেন, ‘আজকে ক’ষ্ট হয় জনগণ জানতে চায়, বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে কি নেবে না। এ মুহূর্তে যারা জানতে চায়, বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে কি না, তারা কি চোখে দেখে না? তাদের কি বোধশক্তি নাই? তাদের যদি বোধশক্তি থেকে থাকে, তাহলে তাদের তো বুঝার কথা বাংলাদেশে কোনো নির্বাচন আছে কি না। নির্বাচন থাকলে তো অংশগ্রহণের প্রশ্ন আসবে। যেখানে নির্বাচনই নাই দেশে, সেখানে প্রশ্ন কিসের?

তিনি আরও বলেন, ‘বিএনপি নির্বাচনে অংশ নেবে কি নেবে না, এটা তো প্রশ্ন করার দরকার নাই। জনগণ ভোট দিতে পারবে কি পারবে না, এটা প্রশ্ন করার দরকার আছে। সুতরাং বিষয়টি পরিষ্কার। অ’তএব এ প্রশ্ন যাতে আর কেউ না করে। আগামী নির্বাচন যদি হয়, তাহলে সেটা হতে হবে নির্দলীয় নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে। তাছাড়া নির্বাচন হবে না।’

এ সময় বিএনপি সঠিক পথে আছে মন্তব্য করে আমীর খসরু বলেন, ‘আম’রা গণতন্ত্রের পক্ষে, আইনের শাসনের পক্ষে, গণমাধ্যমের স্বাধীনতার পক্ষে। সাংবিধানিক অধিকারের পক্ষে যারা আছে, আম’রা আগামী নির্বাচনের জন্য ঐক্যবদ্ধ থাকব। আগামী দিনে নিরপেক্ষ সরকারের মাধ্যমে একটি অংশগ্রহণমূলক নির্বাচনের পক্ষে যারা থাকবেন, তাদের সঙ্গে বিএনপি থাকবে।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি ড. কাজী মনিরুজ্জামান মনিরের সভাপতিত্বে শোকসভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির আহ্বায়ক আব্দুস সালাম, নির্বাহী কমিটির সদস্য আবু নাসের মোহাম্ম’দ রহমতুল্লাহ, বাংলাদেশ জাতীয় দলের চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট সৈয়দ এহসানুল হুদা প্রমুখ।

 

Back to top button