জাতীয়

গ্যাসের দাম আরো বাড়লে জনগণের জন্য বড় চাপ হবে

বর্তমান পরিস্থিতিতে গৃহস্থালির গ্রাহকদের জন্য আবার গ্যাসের দাম বাড়ানো হলে তা নিত্যপ্রয়োজনীয় জিনিসের মূল্যবৃদ্ধির মধ্যে জনসাধারণের জন্য বড় চাপ হয়ে যাবে বলে মন্তব্য করেছে জ্বালানি বিশেষজ্ঞরা।

শনিবার এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার ম্যাগাজিন আয়োজিত ‘উড ইট বি র‌্যাশোনাল টু ইনক্রিজ গ্যাস প্রাইজ নাউ?’ শীর্ষক অনলাইন সেমিনারে বক্তৃতাকালে বিশিষ্ট জ্বালানি বিশেষজ্ঞ ড. এম তামিম বলেছেন, ‘জনগণ সত্যিই ভয়াবহ পরিস্থিতির মধ্যে রয়েছে। টিসিবি পণ্য কেনার জন্য লাইন দিন দিন বাড়ছে।’

তামিম বলেন, হঠাৎ করে জ্বালানির দামের পরিবর্তন, ব্যবসার ক্ষেত্রেও সমস্যা তৈরি করবে।তিনি বলেন, সরকারের উচিত উন্নয়ন প্রকল্প স্থগিত করা এবং জনগণের জীবন রক্ষায় তহবিল বরাদ্দ করা। কারণ তারা যু’দ্ধের মতো পরিস্থিতির মুখোমুখি হচ্ছে।

গ্যাসের দাম বৃদ্ধির প্রস্তাবের ওপর আগামী ২১ থেকে ২৪ মা’র্চ পর্যন্ত গণশুনানি করবে বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন (বিইআরসি)। খুচরা গ্রাহক পর্যায়ে গ্যাসের দাম ১১৭ শতাংশ বৃদ্ধির জন্য বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) কাছে প্রস্তাব দেয় রাষ্ট্রীয় মালিকানাধীন গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলো। এই গণশুনানির ভিত্তিতে এসব বক্তব্য দেন বিশেষজ্ঞেরা।

সেমিনারে আরো বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের (বিইআরসি) চেয়ারম্যান আবদুল জলিল, পলিসি রিসার্চ ইনস্টিটিউটের (পিআরআই) নির্বাহী পরিচালক ড. আহসান এইচ মনসুর এবং এফবিসিসিআই-এর জ্বালানি স্থায়ী কমিটির চেয়ারম্যান হু’মায়ুন রশীদ।

আহসান মনসুর বলেন, গ্যাসের দাম বাড়ানো হলে তা অবশ্যই সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার মানকে প্রভাবিত করবে। অনেকেই দারিদ্র্যসীমা’র নিচে চলে যাবে।তিনি বিশ্ব জ্বালানি বাজারে স্থিতিশীল অবস্থায় ফেরার জন্য সরকারকে কিছু সময় অ’পেক্ষা করার পরাম’র্শ দেন। এ বিষয়ে যেকোনো সিদ্ধান্ত রমজানের পর নেয়া উচিত বলে তিনি মনে করেন।

সেমিনারটি পরিচালনা করেন ইপি সম্পাদক মোল্লা আমজাদ হোসেন।বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশনের চেয়ারম্যান আবদুল জলিল তরলীকৃত প্রাকৃতিক গ্যাস আম’দানিতে ভর্তুকি ও মূল্য সংযোজন কর (ভ্যাট) ও অন্যান্য শুল্কের বিষয়ে সরকারের কোনো সিদ্ধান্ত আছে কিনা তা জানাতে জ্বালানি নিয়ন্ত্রক সংস্থা সংশ্লিষ্ট বিভাগকে চিঠি পাঠিয়েছেন।

তিনি বলেন, এবার বিইআরসি টেকনিক্যাল টিমকে গ্যাস বিতরণ কোম্পানিগুলোর আপিল স্বাধীনভাবে বিশ্লেষণ করে তাদের পর্যবেক্ষণ করতে বলা হয়েছে।

 

Back to top button