জাতীয়

ওয়াদা করেছিলাম প্রতিটি ঘর আলোকিত করবো, আজ সেটা হয়েছে

আওয়ামী লীগের নির্বাচনী প্রতিশ্রুতির কথা স্ম’রণ করিয়ে দিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ওয়াদা করেছিলাম প্রতিটি ঘর আলোকিত করবো, আজ সেটা হয়েছে। দেশের প্রতি ঘরে আলো জ্বালতে পেরেছি, এটিই সবচেয়ে বড় কথা। আলোর পথে যাত্রা শুরু হয়েছে। কোনো ঘর অন্ধকারে থাকবে না।

সোমবার (২১ মা’র্চ) বেলা ১২টার দিকে পটুয়াখালীর কলাপাড়ার ধানখালীর পায়রাতে নির্মিত দেশের বৃহত্তম পায়রা ১৩২০ মেগাওয়াট তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন করতে গিয়ে এ কথা বলেন তিনি। এর মাধ্যমে দক্ষিণ এশিয়ার প্রথম দেশ হিসেবে সারাদেশে শতভাগ বিদ্যুতায়নের ঘোষণা এলো।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, দেশের সব স্থানে বিদুৎ সেবা পৌঁছানোর জন্য আম’রা চেষ্টা করে যাচ্ছি। দেশের দুর্গম এলাকা যেমন রাঙাবালী, নিঝুম দীপ, সন্দীপসহ বিভিন্ন এলাকায় নদীর নিচ দিয়ে সাবমেরিন ক্যাবল দিয়ে বিদ্যুৎ পৌঁছে দিচ্ছি। আর সেসব এলাকায় ক্যাবলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ পৌঁছানো যাচ্ছে না সেখানে আম’রা সোলার প্যানেলের মাধ্যমে বিদ্যুৎ সরবরাহ করার উদ্যোগ গ্রহণ করেছি।তিনি বলেন, প্রতিটি জায়গায় কিন্তু আম’রা বিদ্যুৎ দিয়ে দিচ্ছি। প্রতিটি জীবন আলোকিত হবে এটাই আমাদের লক্ষ্য। সেই লক্ষ্যেই আম’রা কাজ করে যাচ্ছি। কোনো ঘর অন্ধকারে থাকবে না, প্রতিটি মানুষের জীবন আলোকিত হয়ে উঠবে।

তিনি আরও বলেন, এই সময়ে গণতান্ত্রিক ধারা অব্যাহত রেখেছি। অনেক ঝড় এসেছে, তবুও অব্যাহত রাখতে পেরেছি বলেই আজ বাংলাদেশ উন্নয়নের মহাসড়কে। এ সময় প্রধানমন্ত্রী দেশের উন্নয়নে বিদ্যুতের প্রয়োজনীয় ও গুরুত্ব তুলে ধরে বঙ্গবন্ধুর দেওয়া বক্তব্য তুলে ধরেন।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদের সভাপতিত্বে বিশেষ অ’তিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন প্রধানমন্ত্রীর জ্বালানি বিষয়ক উপদেষ্টা তৌফিক-ই-ইলাহী চৌধুরী, বীর বিক্রম; বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মো. হাবিবুর রহমান ও বাংলাদেশে নিযু’ক্ত চীনা রাষ্ট্রদূত লি জিমিং।অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন বাংলাদেশ-চায়না পাওয়ার কম্পানি লিমিটেডের (বিসিপিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) প্রকৌশলী এ এম খোরশেদুল আলম।

 

Back to top button