জাতীয়

মুক্তির উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী’ মেলায় এবার মুগ্ধ করেছে ‘পেঁয়াজ-রসুনের স্মৃ’তিসৌধ!

‘মুক্তির উৎসব ও সুবর্ণজয়ন্তী’ মেলায় এবার দর্শকদের মুগ্ধ করেছে ‘পেঁয়াজ-রসুনের স্মৃ’তিসৌধ’!ময়মনসিংহের গৌরীপুর কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তরের উদ্যোগে কৃষি উপকরণে তৈরি স্মৃ’তিসৌধে রয়েছে সাতটি ত্রিভুজাকৃতি মিনারের শিখর ‘মুক্তি সংগ্রামের সাতটি পর্যায়’। এটি দর্শনার্থীদের স্ম’রণ করিয়ে দেবে বায়ান্নর ভাষা আ’ন্দোলন, চুয়ান্ন, ছাপান্ন, বাষট্টি, ছেষট্টি ও ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের এবং একাত্তরের মুক্তিযু’দ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা সংগ্রামের চূড়ান্ত বিজয়।

কৃষি বিভাগের উপসহকারী কৃষি অফিসার সুমন সরকারের পরিকল্পনায় উৎসবের ম’র্মবাণী তারুণ্যকে উজ্জীবিত করছে। এ ছাড়া কৃষি বিভাগের মেলায় প্রথমবারের মতো প্রদর্শন করা হচ্ছে— বেগুনি, হলুদ ও সাদা রঙের ফুলকপি, যা চ’মক সৃষ্টি করেছে। বঙ্গবন্ধুর জন্ম’দিন থেকে চলা মেলায় বিভিন্ন দপ্তরের স্টল পরিদর্শন করেন প্রধান অ’তিথি বীর মুক্তিযোদ্ধা নাজিম উদ্দিন আহমেদ এমপি।

উপজে’লা কৃষি অফিসার লুৎফুন্নাহার জানান, শহীদদের সম্মানে পেঁয়াজ-রসুনের স্মৃ’তিসৌধ করা হয়। এটিতে জাতীয় পতাকা করা হয়েছে ম’রিচ দিয়ে। এ স্মৃ’তিসৌধ তরুণ প্রজন্মকে স্ম’রণ করিয়ে দেবে বায়ান্নর ভাষা আ’ন্দোলন, চুয়ান্ন, ছাপান্ন, বাষট্টি, ছেষট্টি ও ঊনসত্তরের গণঅভ্যুত্থানের এবং একাত্তরের মুক্তিযু’দ্ধের মাধ্যমে স্বাধীনতা সংগ্রামের চূড়ান্ত বিজয়। এটি একটি এ ভিন্নধ’র্মী চেষ্টা।

উপজে’লা পরিষদ চত্বরে সোমবার মেলা উপলক্ষ্যে বিতর্ক, কুইজ প্রতিযোগিতা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ইউএনও হাসান মা’রুফ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন উপজে’লা উপসহকারী কৃষি অফিসার মো. শরিফুল ই’স’লা’ম। অনুষ্ঠানে সহযোগিতা করেন কৃষি, মৎস্য, প্রা’ণিসম্পদ বিভাগ।

বিশেষ অ’তিথির বক্তব্য রাখেন— উপজে’লা পরিষদের চেয়ারম্যান মো. মোফাজ্জল হোসেন খান, ভাইস চেয়ারম্যান সালমা আক্তার রুবি, উপজে’লা আওয়ামী লীগের ভা’রপ্রাপ্ত সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা ডা. হেলাল উদ্দিন আহাম্মেদ, ভা’রপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক ম. নুরুল ই’স’লা’ম, উপজে’লা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. ইকবাল আহমেদ নাসের, উপজে’লা কৃষি অফিসার লুৎফুন্নাহার, সিনিয়র উপজে’লা মৎস্য অফিসার জান্নাত এ হুর, থা’নার অফিসার ইনচার্জ খান আব্দুল হালিম সিদ্দিকী, উপজে’লা প্রা’ণিসম্পদ অফিসার ডা. মো. নাজিমুল ই’স’লা’ম, উপজে’লা শিক্ষা অফিসার মনিকা পারভীন, উপজে’লা যুব উন্নয়ন অফিসার নন্দন কুমা’র দেবনাথ, উপজে’লা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মো. আশরাফুল ই’স’লা’ম, উপজে’লা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. আব্দুর রহিম, সাবেক ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. নাজিম উদ্দিন, বীর মুক্তিযোদ্ধা তোফাজ্জল হোসেন প্রমুখ।

Back to top button