জাতীয়

স্ত্রী’-সন্তানকে গলা কে’টে হ’ত্যা, ২২ ঘণ্টা পর আ’সা’মি গ্রে’প্তা’র

গাজীপুর মহানগরীর গাছা এলাকায় পারিবারিক কলহের জেরে স্ত্রী’ ও সন্তানকে গলা কে’টে হ’ত্যার ঘটনায় অ’ভিযু’ক্ত মো. মফিজকে (৫৫) গ্রে’প্তা’র করেছে পু’লিশসোমবার (২১ মা’র্চ) রাত ১১টার দিকে রাজধানীর তেজগাঁও নয়াটোলা আমবাগ এলাকার একটি রিকশার গ্যারেজ থেকে তাকে গ্রে’প্তা’র করে গাছা থা’না পু’লিশের একটি দল।গাজীপুর মেট্টোপলিটন পু’লিশের উপ কমিশনার ইশতুৎ মিশ বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে রোববার (২০ মা’র্চ) রাত ১টার দিকে গাছা থা’নাধীন বোর্ড বাজারের পূর্ব কলমেশ্বর এলাকায় স্ত্রী’ রহিমা বেগম (৪০) ও ছে’লে রোকনকে (১৬) গলা কে’টে হ’ত্যার অ’ভিযোগ ওঠে মফিজের বি’রু’দ্ধে। এ ঘটনায় সোমবার দুপুরে নি’হ’ত রহিমা বেগমের বড় ভাই রাসেদুল ই’স’লা’ম বাদী হয়ে গাছা থা’নায় একটি হ’ত্যা মা’ম’লা দায়ের করেন।

 অ’ভিযু’ক্ত মফিজের বাড়ি ময়মনসিংহ জে’লার মুক্তাগাছা থা’নার রামভদপুর গ্রামে। তিনি স্ত্রী’, সন্তান নিয়ে কলমেশ্বর এলাকায় ভাড়া থাকতেন এবং ঢাকায় রিকশা চালাতেন।

পু’লিশ জানান, রোববার রাতে স্ত্রী’ ও সন্তানকে জবাই করে হ’ত্যার পর পালিয়ে ঢাকায় চলে আসে রিকশাচালক মফিজ। ছদ্মবেশ ধারণ করতে নিজের গোঁফ ও দাড়ি ছেটে ফেলে সে। ঘটনার পর থেকে গাছা থা’না পু’লিশের একটি দল ঢাকার তেজগাঁও, মহাখালীসহ বিভিন্ন এলাকার রিকশার গ্যারেজে নজরদারি করে। একপর্যায়ে রাত ১১টার দিকে তেজগাঁও নয়াটোলা আমবাগ এলাকার আক্তার হোসেনের রিকশার গ্যারেজ থেকে মফিজকে গ্রে’প্তা’র করা হয়।

 গাজীপুর মেট্রোপলিটন পু’লিশের সহকারী কমিশনার (গাছা) আহসানুল হক বলেন, ‘স্ত্রী’র সঙ্গে মফিজের প্রায়ই কলহ লেগে থাকত। রোববার রাতে মফিজ একটি নতুন বটি কিনে আনেন। রাতে সবাই ঘুমিয়ে পড়লে বাহির থেকে বাড়ির অন্য ভাড়াটিয়াদের সিট’কিনি আ’ট’কে দেয় মফিজ। পরে রহিমা ও রোকনকে ওই বঁটি দিয়ে গলা কে’টে হ’ত্যা করে পালিয়ে যান। পালানোর সময় তার আট বছর বয়সী ছে’লে আল-আমিন ঘটনাটি দেখে আশপাশের মানুষকে জানায়।’

Back to top button