জাতীয়

১০০ টাকায় মিলে টিসিবির কার্ড!

গত ২০ মা’র্চ থেকে ফ্যামিলি কার্ডের মাধ্যমে জে’লার ৭৫ হাজার ৫৫৬ ফ্যামিলিকে ৪৬০ টাকায় টিসিবির পণ্য দেওয়া হচ্ছে। এ কার্ড দেওয়ার নাম করে চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদায় ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশের (টিসিবির) কার্ড করে দেয়ার নামে নিম্ন আয়ের মানুষের কাছ থেকে ১০০ টাকা করে নেয়ার অ’ভিযোগ উঠেছে বেশ স্থানীয় মেম্বারসহ কয়েকজনের বি’রু’দ্ধে।

অ’ভিযোগে জানা গেছে, দামুড়হুদা আরামডাঙ্গা গ্রামের মৃ’ত আবুলের ছে’লে মজিবর খাঁ (৫০) এর বি’রু’দ্ধে টিসিবির পণ্য কেনার কার্ড তৈরিতে গ্রামের বেশ কয়েকজন নিম্ন আয়ের মানুষের কাছ থেকে ১০০টাকা করে আদায়ের অ’ভিযোগ উঠেছে। এ বিষয়ে ভ‚ক্তভোগী দিন মুজুর আরামডাঙ্গা গ্রামের জাহানবি খাঁর ছে’লে জাহাঙ্গীর হোসেন সাংবাদিকদের কাছে অ’ভিযোগ করে বলেন, আমা’র টিসিবির পণ্য কেনার কার্ড করে দেওয়ার নাম করে ১শ টাকা নিয়েছে মজিবর খা। টাকা নেওয়ার সময় তিনি আমা’র ছবি নিয়ে যান। একই গ্রামের জান মোহাম্ম’দের ছে’লে মহাসিন (২০) অ’ভিযোগ করে বলেন, মজিবর খা টিসিবির কার্ড করে দেওয়ার নাম করে আমা’র কাছ থেকে ১শ টাকা নিয়েছে।

কার্ড করে দেয়ার নামে টাকা নেয়ার বিষয়টি স্বীকার করে মজিবর রহমান বলেন, আমি বিল্লাল মেম্বারের সাথে থাকি। আমি গরীব মানুষ। দিনমজুরের কাজ করে খাই। তাদের কাজ করে দিতে হলে আমা’র কাজে অনুপস্থিত হতে হয়। তাই তাদের কাছে থেকে ১০০ টাকা করে নিয়েছি।

টাকা নেয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেন কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়নের ২নং ওয়ার্ড সদস্য আরামডাঙ্গা গ্রামের বিল্লাল হোসেন। তিনি বলেন, এ বিষয়ে আমি কিছুই জানিনা।কার্পাসডাঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল করিম বিশ্বা’স জানান, টিসিবির পণ্য বিক্রির জন্য ক্রেতার তালিকা তৈরিতে অর্থ আদায়ের কোন সুযোগ নেই। অ’বৈ’ধভাবে অর্থ আদায় করা হলে সে যেই হোক তার বি’রু’দ্ধে ত’দ’ন্তপূর্বক ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

এ বিষয়ে দামুড়হুদা উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা তাছলিমা আক্তার জানান, ঘটনাটি শুনেছি। বিষয়টি ত’দ’ন্ত করে দেখতে উপজে’লা সহকারি কমিশনারকে (ভূমি) বলা হয়েছে। আজ বৃহস্পতিবার ঘটনাটি ত’দ’ন্ত করতে যাবেন তিনি

Back to top button