আন্তর্জাতিক

মু’সলিম বিশ্বে ই’স’রায়েলের অনুপ্রবেশ রোধ করুন

ই’রানের প্রতিনিধি সায়িদ খাতিবজাদেহ ই’স’লা’মী সহযোগিতা সংস্থা বা ওআইসি’র পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে ই’স’লা’মী প্রজাতন্ত্র ই’রানের প্রতিনিধি মু’সলিম বিশ্বে ই’স’রায়েলের অনুপ্রবেশ রুখতে এই সংস্থার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন।

তিনি বলেন, ই’স’রায়েলের বলদর্পি নীতি এবং তার প্রধান সহযোগী মা’র্কিন সরকার মু’সলিম দেশগুলোর সঙ্গে স’ম্প’র্ক স্বাভাবিক করার নামে উপিনবেশবাদী নীতি এগিয়ে নেয়ার যে প্রচেষ্টা চালাচ্ছে ওআইসির কোনো কোনো সদস্য রাষ্ট্র তাতে সাড়া দিচ্ছে! আর এ বিষয়টি সংশ্লিষ্ট মহলে বিপদ-ঘণ্টা হয়ে দেখা দিয়েছে।

উগ্র ইহুদিবাদী দখলদাররা ১৯৬৯ সালে মু’সলমানদের প্রথম কেবলা আল-আকসা ম’স’জিদে অ’গ্নিসংযোগ করলে এরই প্রেক্ষাপটে সে বছরই বিশ্ব-ই’স’লা’মী ঐক্য ও সার্বিক সহযোগিতার লক্ষ্য সামনে রেখে গঠন করা হয় ই’স’লা’মী সম্মেলন সংস্থা যা বর্তমানে ই’স’লা’মী সহযোগিতা সংস্থা বা ওআইসি নামে পরিচিত। ৫৭টি মু’সলিম দেশ নিয়ে গঠিত এই সংস্থা বায়তুল মুকাদ্দাসসহ মু’সলমানদের পবিত্র স্থানগুলোকে ইহুদিবাদী দখলদারদের হাত থেকে মুক্ত করবে এবং সব মু’সলিম জাতি ও বিশেষ করে ফি’লি’স্তিনি জাতির অধিকার আদায়ের সংগ্রামের সহযোগী হবে বলে অঙ্গীকারবদ্ধ হয়েছিল।

ওআইসি’ গঠনের এই পটভূমি ও ফি’লি’স্তিনি জাতির আশা-আকাঙ্ক্ষার প্রতি আরব জাতিগুলোর অঙ্গীকারবদ্ধতা সত্ত্বেও ২০২০ সাল নাগাদ চারটি আরব সরকার ইহুদিবাদী ই’স’রায়েলের সঙ্গে স’ম্প’র্ক স্বাভাবিক করার উদ্যোগ নিয়েছে। এই চারটি সরকার হল আরব আমিরাত, বাহরাইন, সুদান ও ম’রক্কো। মা’র্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রা’ম্পের মধ্যস্থতায় কথিত আব্রাহাম সমঝোতার আওতায় ওই চারটি আরব সরকার দখলদার ই’স’রাইলের সঙ্গে স্বাভাবিক কূটনৈতিক স’ম্প’র্ক প্রতিষ্ঠা করেছে।

এর আগে আরব বিশ্বে ই’স’লা’মী জাগরণের প্রেক্ষাপটে ই’স’রায়েলের সঙ্গে কেবল আপোষ-রফা পর্যন্ত অগ্রসর হতে আরব সরকারগুলোকে উৎসাহ দিত মা’র্কিন সরকার ও তাদের স্থানীয় ক্রীড়নক সরকারগুলো। সৌদি সরকার নিজেকে মু’সলিম বিশ্বের অ’ভিভাবক বলে দাবি করতে অভ্যস্ত হলেও এ ধরনের আপোষ-রফার প্রতি ম’দদ যোগানোর পাশাপাশি ফি’লি’স্তিনিদের অধিকারের প্রতিও সম’র্থন দেখিয়ে এসেছে।

কিন্তু মুহাম্মাদ বিন সালমান সৌদি আরবের যুবরাজ হওয়ার পর থেকে রিয়াদ মা’র্কিন সরকারের প্রতি আরও বেশি সেবাদাসসুলভ হয়ে পড়ে এবং সৌদি সরকারের ইঙ্গিতেই চারটি আরব সরকার ই’স’রায়েলের সঙ্গে স’ম্প’র্ক স্বাভাবিক করে। মুহাম্মাদ বিন সালমান ২০১৮সালে মা’র্কিন ম্যাগাজিন আটলান্টিককে বলেছিলেন, আমি মনে করি ই’স’রায়েলিরা নিজস্ব দেশ বা রাষ্ট্রের অধিকারী হওয়ার অধিকার রাখে। আর তাই রিয়াদ শিগগিরই প্রকাশ্যেই ই’স’রাইলের সঙ্গে স’ম্প’র্ক স্বাভাবিক করবে বলে আশ’ঙ্কা করা হচ্ছে।

 

Back to top button