রাজনীতি

খাদ্য মন্ত্রণালয় অ’ভিমুখে বাম দলের মিছিলে বাধা

ভোজ্যতেলসহ নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে খাদ্য মন্ত্রণালয় অ’ভিমুখে ৯টি বাম দলের মিছিলে বাধা দিয়েছে পু’লিশ।রোববার (২৭ মা’র্চ) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে বি’ক্ষো’ভ সমাবেশ শেষে খাদ্য মন্ত্রণালয়ের দিকে অ’ভিযাত্রায় বাধা দেওয়া হয়।

এর আগে বি’ক্ষো’ভ সমাবেশে ৯ দলের পক্ষে ৭ দফা দাবি উত্থাপন করা হয়। দাবিগুলো হলো—সে’নাবাহিনী, বিজিবি ও পু’লিশ সদস্যদের মতো সারাদেশে শ্রমজীবী ও স্বল্প আয়ের জনগণের জন্য পূর্ণ রেশনিং চালু করা; সিন্ডিকেট ভে’ঙে স্পেশাল ট্রাইব্যুনাল গঠন করে সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী, লুটেরা আড়তদার ও দু’র্নী’তিবাজ খুচরা বিক্রেতাদের শা’স্তি দেওয়া; বাজার তদারকি জো’রদার করা ও পণ্য পরিবহনে পথে পথে পু’লিশের চাঁদাবাজি বন্ধ করা; টিসিবির বিক্রয় কেন্দ্রের সংখ্যা বাড়ানো ও সেখানে বৃদ্ধ ও প্রতিব’ন্ধীদের অগ্রাধিকার দেওয়া; জাতীয় বাজেটে খাদ্যশস্য ক্রয়ের জন্য ১০ হাজার কোটি টাকা থোক বরাদ্দ দেওয়া ও খাদ্যশস্য সংরক্ষণের জন্য প্রতিটি জে’লায় ও কৃষিপ্রধান এলাকায় আধুনিক খাদ্য সংরক্ষণাগার নির্মাণ করা; গ্যাস, বিদ্যুৎ, পানির দাম বৃদ্ধি না করা ও জ্বালানি তেলের বর্ধিত মূল্য ও পরিবহনের বর্ধিত ভাড়া প্রত্যাহার করা এবং সভা সমাবেশ মিছিলে পু’লিশ ও সরকারি গুন্ডাদের হা’ম’লা বন্ধ করা।

কর্মসূচির আয়োজক ৯টি বাম দল হলো—বাংলাদেশের সাম্যবাদী আ’ন্দোলন, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিল, নয়াগণতান্ত্রিক গণমোর্চা, জাতীয় গণফ্রন্ট, গণমুক্তি ইউনিয়ন, বাসদ (মাহবুব), জাতীয় গণতান্ত্রিক গণমঞ্চ, বাংলাদেশের সমাজতান্ত্রিক পার্টি এবং কমিউনিস্ট ইউনিয়ন।

সমাবেশে উপস্থিত ছিলেন নয়া গণতান্ত্রিক গণমোর্চার সভাপতি জাফর হোসেন, বাংলাদেশের সাম্যবাদী আ’ন্দোলনের নেতা শুভাংশ চক্রবর্তী, জাতীয় মুক্তি কাউন্সিলের সম্পাদক ফয়জুল হাকিম, গণমুক্তি ইউনিয়নের আহ্বায়ক নাসিরুদ্দিন নাসু প্রমুখ।

Back to top button