জাতীয়

অনেক ই’মাম জুমা’র খুৎবায় ধ’র্মীয় বিভেদ তৈরির কথা বলেন

আজ দুপুরে নারায়ণগঞ্জ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী বলেছেন, এখন অনেক ম’স’জিদের ই’মামগণ জুমা’র খুৎবায় ধ’র্মীয় বিভেদ তৈরি করার কথা বলেন। আমাদের প্রিয় নবী যেখানে অন্য ধ’র্মের সম্প্রীতির কথা বলেছেন। সেখানে এত বছর পরে এসে আম’রা সম্প্রীতি না বাড়িয়ে অনেক সময় বলি আম’রা শ্রেষ্ঠ। আমাদের ই’স’লা’ম ধ’র্ম শ্রেষ্ঠ, কিন্তু শ্রেষ্ঠত্বের বহি:প্রকাশ তো অন্যকে ছোট করে নয়।

আজ সোমবার ২৮ মা’র্চ দুপুরে নগরের আলী আহাম্ম’দ চুনকা পাঠাগার মিলনায়তনে ধ’র্ম মন্ত্রনালয় আয়োজিত ধ’র্মীয় সম্প্রীতি ও সচেতনতামূলক দিনব্যাপী প্রশিক্ষণ অনুষ্ঠানে প্রধান অ’তিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।

এ সময় আইভী বলেন, আগে বিভিন্ন দিবসগুলোতে পাড়া মহল্লায় দেশের গান শুনতাম। কিন্তু ইদানীং শুনি না। আম’রা কোথায় জানি গুটিয়ে নিচ্ছি নিজেদের। ধ’র্মীয় অনুভূতি থাকবেই আমাদের। ধ’র্মীয় নেতৃবৃন্দের প্রতি অনুরোধ করবো আপনারা যখন ম’স’জিদে খুৎবা দেন কিংবা মন্দিরে কথা বলেন বা চার্চে কথা বলেন তখন সব ধ’র্মের সম্প্রীতির কথা বলবেন। আপন করার প্রবণতা থাকতে হবে।

আইভী আরও বলেন, এ দেশ সম্প্রীতির দেশ। আম’রা এখানে একসঙ্গে মিলেমিশে বসবাস করি। আমাদের দেশটা আস্তে আস্তে সামনের দিকে এগিয়ে যাক। পৃথিবীর বহু দেশ আছে যেখানে একই সঙ্গে অনেক ধ’র্মের লোক বসবাস করছে। কিন্তু ধ’র্ম নিয়ে কেউই বাড়াবাড়ি করছে না।

তিনি বলেন, মাঝে মাঝে আমাদের দেশে কিছু স্বার্থান্বেসী মহল নিজেদের স্বার্থের প্রয়োজনে ধ’র্মের কথা বলে উস্কে দিয়ে নিজের কার্যসিদ্ধি করতে চাচ্ছে। তার মধ্যে বর্হিবিশ্বেরও কিছু ইন্ধন থাকে। সবমিলিয়ে কোনো কোনো সময় তারা দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায় এবং অস্থির করার জন্য সবচেয়ে সহ’জ পদ্ধতি হলো ধ’র্ম। এই ধ’র্মকে তারা হাতিয়ার হিসেবে বেছে নেয়।

এ সময় আইভী বলেন, বাংলাদেশকে যতবার অস্থিতিশীল করার চেষ্টা করা হয়েছে ততবারই রাজনীতির পাশাপাশি ধ’র্মকে টেনে আনা হয়েছে। ধ’র্মের উন্মাদনা আম’রা দেখেছি। দিনশেষে এটা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। আম’রা প্রত্যেকেই প্রত্যেকের ধ’র্ম পালন করবো বঙ্গবন্ধু এটাই চেয়েছিলেন।

 

Back to top button