আন্তর্জাতিক

ফি’লি’স্তিনি শি’শুদেরকে কুরআন প্রতিযোগিতার পুরস্কার উৎসর্গ করল আলজেরিয়ান শি’শু

দেশের সর্ববৃহৎ কুরআন তেলাওয়াত প্রতিযোগিতায় চূড়ান্ত পর্বে সবাইকে টপকে প্রথম স্থান অধিকার অর্জন করেছে আলজেরিয়ান শি’শু আব্দুল খালেক। পুরস্কার হিসেবে পেয়েছে ৪০০ হাজার দিনার বা দুই হাজার ৮০০ মা’র্কিন ডলার। কিন্তু সে এটি নিজের জন্য রাখেনি; বরং পুরস্কারের পুরো টাকা’টাই সে ফি’লি’স্তিনি শি’শুদের উপহার হিসেবে দিয়ে দিয়েছে।

সোমবার আলজাজিরা জানায়, স্থানীয় টিভি চ্যানেল আশশুরুকের এক অনুষ্ঠানে মা এবং পরিবারের আরো কয়েকজন সদস্যের সামনে শি’শুটি এ ঘোষণা দেয়।পুরস্কারের অর্থ বিতরণে বিশেষত প্রয়োজনগ্রস্ত ও বন্দী ফি’লি’স্তিনি শি’শুদের অগ্রাধিকার দেয়া হবে বলে জানায় সে।

শি’শু আব্দুল খালেক ওই অনুষ্ঠানের সঞ্চালক ও কুরআন প্রতিযোগিতার অন্যতম বিচারক ড. কা’মাল কুদাহকে পুরস্কারটি ফি’লি’স্তিনে পৌঁছানোর দায়িত্ব দিয়েছে। কা’মাল কুদাহ ২০১১ সালে একটি কাফেলা নিয়ে ফি’লি’স্তিন সফর করেন। ওই কাফেলার ই’মাম ছিলেন তিনি।

টিভির ওই অনুষ্ঠানে ফি’লি’স্তিনি পতাকা গায়ে জড়িয়ে মঞ্চে উঠে আব্দুল খালেক। তখন সে বলে, ‘আমি আমা’র জান-মাল ফি’লি’স্তিনি শি’শুদের জন্য উৎসর্গ করলাম।’ একইসাথে আলজেরিয়ান শি’শুদেরে তরফ থেকে সে বলে, ‘সমস্ত আলজেরিয়ান শি’শুও ফি’লি’স্তিনিদের সাথেই আছে।’

যখন সে এ কথাগুলো বলছিল, তখন অনুষ্ঠানে উপস্থিত সবার চোখ থেকেই আনন্দাশ্রু ঝরতে থাকে। এ সময় সে ফি’লি’স্তিনি শি’শুদের সম্বোধন করে আরো বলে, ‘আমাদের কোনো বিশ্রাম নেই তোমাদের সাথে আল কুদস শরিফে (ম’স’জিদুল আকসা) নামাজ পড়ার আগ পর্যন্ত, যেভাবে নামাজ আদায় করেছেন হযরত ওম’র রা: ও সালাহুদ্দীন আইয়ুবী রহ:।’আব্দুল খালেক দৃঢ়তার সাথে বলে, ‘খুব শিগগির-ই আল্লাহর সাহায্য আসবে।’

Back to top button