জাতীয়

বাড়ি ভাঙতে বাধা, চাচির বুকে লাথি মে’রে মাটিতে ফেলে দিলেন ভাতিজা

এবার আকলিমা খাতুনের নির্মাণাধীন বসতবাড়িটি ভাঙার জন্য দলবল নিয়ে হাজির হন চাচাতো ভাই মাসুদ রানা। মাসুদের ভাড়াটে স’ন্ত্রা’সী বাহিনীর তা’ণ্ড’বে মুহূর্তের মধ্যে চারদিকে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে। পরে মাসুদ ইট দিয়ে গাঁথা দেয়াল ভাঙা শুরু করলে আকলিমা’র ষাটোর্ধ্ব মা মনোয়ারা বেগম দূর থেকে ঘরটি না ভাঙার জন্য বারবার অনুরোধ করছিলেন। কিন্তু মাসুদের কানেই পৌঁছায়নি বৃদ্ধা মনোয়ারার নিচু স্বরের আওয়াজ। এক পর্যায়ে অনুরোধ করতে কাছে এগিয়ে যেতেই মাসুদ ওই বৃদ্ধার বুকের ঠিক মাঝখানে লাথি মে’রে মাটিতে ফেলে দেন।

এর ফলে তার মা’থার এক অংশ থেঁতলে যায় পড়ে থাকা ইটের আ’ঘাতে। শ্রীপুরের তেলিহাটি ইউনিয়নের উত্তর পেলাইদ গ্রামে গতকাল সোমবার বিকেলে ঘটে যাওয়া এ ঘটনার ভিডিও ফেসবুকে ভাই’রাল হয় আজ মঙ্গলবার। বৃদ্ধার বুকে যুবকের লাথির ওই দৃশ্য ভাই’রাল হওয়ার পর নিন্দার ঝড় উঠে গাজীপুর ও আশপাশের এলাকায়। আজ মঙ্গলবার দুপুরে ঘটনাস্থলে ছুটে যান কালিয়াকৈর সার্কেলের সহকারী পু’লিশ সুপার আজমীর হোসেন, শ্রীপুর উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা তরিকুল ই’স’লা’ম, শ্রীপুর মডেল থা’নার ওসি (ত’দ’ন্ত) মাহফুজ ইমতিয়ার ভূঁইয়া ও আওয়ামী লীগের নেতারা। এ ঘটনায় থা’নায় মা’ম’লাও হয়েছে।

জানা যায়, উত্তর পেলাইদ গ্রামের আবদুল হাইয়ের কাছ থেকে তার মে’য়ে আকলিমা আক্তার ৩৫ শতাংশ জমি কেনেন বছর ছয়েক আগে। আকলিমা’র স্বামী রফিকুল ই’স’লা’ম তখন সৌদিপ্রবাসী ছিলেন। সম্প্রতি দেশে ফিরে এসে কেনা ওই জমিতে একটি বাড়ি তৈরি শুরু করেন।নির্মাণকাজ প্রায় শেষ প্রান্তে আসার পর আবদুল হাইয়ের ভাতিজা মাসুদ রানা ওই জমির অংশ পাবেন বলে দাবি করেন। মাসুদের বাবার নাম নজরুল ই’স’লা’ম। একপর্যায়ে সোমবার বিকেলে ওই বাড়ি ভাঙার জন্য স’ন্ত্রা’সী বাহিনী নিয়ে হাজির হন মাসুদ। বাড়ি না ভাঙতে অনুরোধ করার জন্য কাছে যেতেই ভাতিজা (দেবরের ছে’লে) মাসুদ বৃদ্ধা মনোয়ারার (আকলিমা’র মা) বুকে প্রকাশ্যে লাথি মা’রেন। মাটিতে লুটিয়ে পড়েন মনোয়ারা। ইটের আ’ঘাতে মা’থা থেঁতলে যায় তার।

এ বিষয়ে শ্রীপুর থা’নার পরিদর্শক (ত’দ’ন্ত) মাহফুজ ইমতিয়ার ভূঁইয়া বলেন, এ ঘটনায় নি’র্যা’তনে শিকার মনোয়রার স্বামী আবদুল হাই বাদী হয়ে মঙ্গলবার সকালে ৩ জনকে আ’সা’মি করে একটি মা’ম’লা দায়ের করেছেন। তবে কাউকে গ্রে’প্তা’র করা সম্ভব হয়নি। ভিডিও ভাই’রাল হওয়ার পর থেকে তারা পলাতক রয়েছেন।

এ ব্যাপারে আকলিমা খাতুন জানান, নির্মাণাধীণ বাড়ি ভে’ঙে গুঁড়িয়ে দেওয়ার সময় মা বাধা দিতে এগিয়ে গিয়েছিল। এতে ক্ষুব্ধ হয়ে মাসুদ মা’র বুকে সজো’রে লাথি মা’রে। ইটের আ’ঘাতে মা’থা থেঁতলে যায়। প্রতিবেশীরা এগিয়ে এলে মাসুদ ও তার সহযোগীরা নানা হু’মকি দেয়। এ সময় মাসুদ কুড়াল দিয়ে বিল্ডিংয়ের তৈরি করা দেওয়াল ভে’ঙে গুঁড়িয়ে দিয়েছে।

এ বিষয়ে কালিয়াকৈর সার্কেলের সহকারী পু’লিশ সুপার আজমীর হোসেন বলেন, এই সভ্য সমাজে বসবাস করে এমন অসভ্য কাজ কোনোভাবেই মানার মতো নয়। এমন একজন প্রবীণের বুকে এভাবে লাথি মা’রা খুবই বর্বর। এদিকে শ্রীপুর উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা মো. তরিকুল ই’স’লা’ম ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে বলেন, ভে’ঙে ফেলা বাড়ির কাজ করতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

 

Back to top button