জাতীয়

বাংলাদেশের কাছে আরও ঋণ চায় শ্রীলংকা, যা বললেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

সংকটে জর্জ’রিত শ্রীলংকার আরও ২৫০ মিলিয়ন ডলারের ঋণের অনুরোধের দিকে নজর রাখছে বাংলাদেশ, তবে এখনও কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. আব্দুল মোমেন।

মঙ্গলবার (২৯ মা’র্চ) ১৮তম বিমসটেক মন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠকের এক পর্যায়ে দ্বীপ রাষ্ট্রের গভীর আর্থিক সংকটের বিষয়ে এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

মোমেন বলেন, তারা এ ব্যাপারে আলোচনা করেছে এবং আম’রা এটি দেখব। এটি আরেকটি ঋণের অংশ হবে তবে এ ব্যাপারে এখনও সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়নি।

বৈশ্বিক অনিশ্চয়তার বিষয়ে তিনি বলেন, ই*উ*ক্রে*নের বর্তমান পরিস্থিতির পর বিষয়গুলো কীভাবে কাজ করবে তা পরিষ্কার নয়। বাংলাদেশ বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আম’দানি নির্ভর জ্বালানির ওপর নির্ভরশীল। অ’তএব আম’রা দেখছি কীভাবে আম’রা একে অ’পরকে সাহায্য করতে পারি।

ড. মোমেন বলেন, শ্রীলংকা যখন সমস্যার মুখোমুখি হয়েছিল বাংলাদেশ প্রথমবারের মতো ২৫০ মিলিয়ন ডলারের কারেন্সি সহযোগিতা দিয়েছিল। শ্রীলংকা এখনও কঠিন সমস্যার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। তাই আম’রা ঋণ পরিশোধের জন্য সময় বাড়িয়েছি।

গত বছরের ৩ আগস্ট বাংলাদেশ ব্যাংক ও সেন্ট্রাল ব্যাংক অব শ্রীলংকার (সিবিএসএল) মধ্যে স্বাক্ষরিত কারেন্সি সোয়াপ চুক্তির অধীনে এটি ছিল কোনো দেশের জন্য দেওয়া বাংলাদেশের প্রথম ঋণ।

ঋণের বোঝা নিয়ন্ত্রণ করা দেশটির জন্য কঠিন হয়ে উঠছে। প্রায় দুই কোটি ২০ লাখ জনসংখ্যার দক্ষিণ এশিয়ার দেশটি দুই বছরে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ৭০ শতাংশ হ্রাসের পরে প্রয়োজনীয় আম’দানির জন্য অর্থ প্রদানে হিমশিম খাচ্ছে।

 

Back to top button