জাতীয়

এক বাড়ির চুলার আ’গু’ন থেকে পুড়ল ৪০ বাড়ি

কক্সবাজারের চকরিয়ায় আ’গু’নে ভস্মীভূত হয়ে গেছে পুরো পাড়ার অন্তত ৪০টি বসতবাড়ি। গ্যাসের চুলার আ’গু’ন থেকে প্রথমে একটি বাড়িতে আ’গু’ন লাগে। তখন বাতাসের গতিও ছিল বেশ। এ ছাড়া মাতামুহুরী নদীতীরবর্তী হওয়ায় বাতাসের সেই তীব্রতায় মুহূর্তের মধ্যে আ’গু’নের লেলিহান শিখা ছড়িয়ে পড়ে চারদিকে।

একে একে পুরো পাড়ার ৪০টি বসতবাড়ি পুড়ে ব্যাপক সম্পদের ক্ষয়ক্ষতি হয়।আজ মঙ্গলবার ঈদের দিন সকাল ৯টার দিকে ভ’য়াবহ এই অ’গ্নিকা’ণ্ড সংঘটিত হয় উপজে’লার কৈয়ারবিল ইউনিয়নের ৬ নম্বর ওয়ার্ডের হিন্দুপাড়া (সুশীলপাড়া) ও তৎসংলগ্ন মু’সলিমপাড়ায়। আ’গু’নে ভস্মীভূত হওয়া ৪০ পরিবারের মধ্যে ৩০ পরিবার হিন্দু ও বাকি ১০ পরিবার মু’সলিম সম্প্রদায়ের বসতবাড়ি রয়েছে বলে স্থানীয় সূত্র জানিয়েছে।

ক্ষতিগ্রস্ত পরিবার সূত্র জানিয়েছে, ঘনবসতিপূর্ণ পাড়াটি আ’গু’নে পুড়ে যাওয়ায় অন্তত তিন কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে। তবে আ’গু’নে কোনো মানুষ হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। খবর পেয়ে চকরিয়া পৌরশহর চিরিঙ্গা থেকে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা আ’গু’ন নেভাতে অকুস্থলে যাওয়ায় আশপাশের অসংখ্য বসতবাড়ি আ’গু’ন থেকে রক্ষা পায়।

চকরিয়া থা’নার ওসি চন্দন কুমা’র চক্রবর্তী জানান, ‘একটি বাড়ির চুলার আ’গু’ন থেকে অ’গ্নিকা’ণ্ড সংঘটিত হয়। আ’গু’নে ৪০টি বসতবাড়ি পুড়ে যায়। তবে এতে কেউ হতাহত হয়নি। একদিকে বাতাসের তীব্রতা, অ’পরদিকে মাতামুহুরী নদীতীরবর্তী হওয়ায় বাতাসের গতিবেগ বেশি ছিল। তাই স্থানীয়ভাবে চেষ্টা করেও আ’গু’ন নেভানো সম্ভব হয়নি। ‘

চকরিয়া উপজে’লা নির্বাহী কর্মক’র্তা জে পি দেওয়ান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন। তিনি বলেন, ‘আ’গু’নে ক্ষতিগ্রস্তদের পুনর্বাসনে যথাযথ সহায়তা প্রদান করা হবে। প্রাথমিকভাবে উপজে’লা প্রশাসনের পক্ষ থেকে খাদ্য সহায়তা দেওয়া হয়েছে পরিবারগুলোকে। ‘

Back to top button