জাতীয়

ঈদের দিনে ৬ জে’লায় বজ্রপাতে ৮ জনের মৃ’ত্যু

পবিত্র ঈদুল ফিতরের দিন বজ্রপাতে দেশের ছয় জে’লায় আটজনের মৃ’ত্যু হয়েছে। এর মধ্যে টাঙ্গাইলে একই স্থানে তিন কি’শোর মা’রা গেছে। এ ছাড়া ব্রাহ্মণবাড়িয়া, হবিগঞ্জ, বাগেরহাট, মেহেরপুর ও কক্সবাজারে একজন করে মা’রা গেছেন।

টাঙ্গাই‌লের কা‌লিহাতী‌তে বজ্রপা‌তে দুই শি’শুসহ তিনজনের মৃ’ত্যু হ‌য়ে‌ছে। মঙ্গলবার (৩ মে ) সকা‌লে উপ‌জে’লার দশ‌কিয়া ইউ‌নিয়নের হা‌তিয়া এলাকায় নদীপা‌ড়ে এ ঘটনা ঘ‌টে।মৃ’ত শি’শুরা হলো- ওই এলাকার র‌বিউ‌লের ছে‌লে আ‌রিফ (১১) এবং একই এলাকার জুলহা‌সের ছে‌লে ফয়সাল (১২)। তাৎক্ষণিকভাবে মৃ’ত আ‌রেকজ‌নের নাম-প‌রিচয় জানা যায়‌নি।

দশকিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আবদুল মালেক ভূঁইয়া বলেন, বজ্রপা‌তে তিনজ‌নের মা’রা যাওয়ার খবর পে‌য়ে‌ছি। তারা ঈ‌দের নামাজ পড়ার আ‌গে নদী‌তে গোসল কর‌তে গি‌য়ে‌ছিল বলে শুনেছি। সেখা‌নে বজ্রপা‌তে তাদের মৃ’ত্যু হয়।এ ঘটনায় এলাকায় শো‌কের ছায়া নে‌মে এ‌সে‌ছে।

ব্রাহ্মণবাড়িয়া

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আখাউড়ায় পবিত্র ঈদুল ফিতরের নামাজ আদায় শেষে বাবার কবর জিয়ারত অবস্থায় বজ্রপাতে রনি মিয়া (৩৫) নামে এক যুবকের মৃ’ত্যু হয়েছে। রনি মিয়া দুর্গাপুর এলাকার মৃ’ত মোহাম্ম’দ আলীর ছে’লে।
দুর্গাপুর গ্রামের বাসিন্দা শিপন আহমেদ জানান, সকাল থেকেই আকাশ মেঘাচ্ছন্ন ছিল। সকাল ৯টার দিকে হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি হচ্ছিল। মেঘও বেশ গর্জন করছিল। এরই মাঝে রনি ঈদের নামাজ আদায় শেষে তার বাবার কবর জিয়ারত করতে খড়মপুর কবরস্থানে যান। এ সময় তিনি বজ্রপাতের কবলে পড়েন। পরে তাকে উ’দ্ধা’র করে দ্রুত আখাউড়া উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে দায়িত্বরত চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন।

হবিগঞ্জ

হবিগঞ্জের আজমিরীগঞ্জ উপজে’লায় গোসল করতে গিয়ে বজ্রপাতে শাহ’জাহান মিয়া (৬০) নামে এক বৃদ্ধ মা’রা গেছেন।স্থানীয়রা জানান, ঈদের দিন সকাল ৯টার দিকে উপজে’লার সদর ইউনিয়নের নয়ানগর গ্রামের শাহ’জাহান মিয়া বাড়ির পাশের পুকুরে গোসল করতে যান। এ সময় বজ্রপাত ঘটলে তিনি আ’হত হন। স্থানীয়রা উ’দ্ধা’র করে উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

বাগেরহাট
বাগেরহাটের মোংলায় কাঠ নিয়ে বাড়ি ফেরার পথে বজ্রপাতে মহির উদ্দিন শেখ (৬৫) নামে এক বৃদ্ধের মৃ’ত্যু হয়েছে। সকালে মোংলা উপজে’লার আগা মাদুরপাল্টা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। মহির উদ্দিন শেখ মোংলা উপজে’লার মাদুরপাল্টা গ্রামের বাসিন্দা।

স্থানীয় ইউপি সদস্য অজিত মজুম’দার জানান, সকাল সাড়ে ১০টার দিকে ঢালিরখণ্ড এলাকা থেকে জ্বালানি কাঠ নিয়ে বাড়িতে ফিরছিলেন মহির উদ্দিন শেখ। পথিমধ্যেই বজ্রপাতের শিকার হন তিনি। স্থানীয়রা তাকে উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃ’ত ঘোষণা করেন।

মেহেরপুর

মেহেরপুর সদর উপজে’লার মনোহরপুর গ্রামে বজ্রপাতে আব্দুর রাজ্জাক (৫৩) নামে এক ব্যক্তির মৃ’ত্যু হয়েছে। এ সময় তার ভাই মন্টু (৪৮) আ’হত হয়েছেন।

স্থানীয়রা জানান, সকালে ঈদের নামাজ পড়ার উদ্দেশ্যে বাড়ি থেকে বের হন রাজ্জাক ও মন্টু। পথে বজ্রপাত হলে দুজনই আ’হত হন। এলাকাবাসী তাদের উ’দ্ধা’র করে মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতা’লে নিয়ে গেলে চিকিৎসক আব্দুর রাজ্জাককে মৃ’ত ঘোষণা করেন।
মেহেরপুর জেনারেল হাসপাতা’লের আবাসিক মেডিকেল অফিসার মোখলেছুর রহমান বিষয়টি নিশ্চিত করেন।

কক্সবাজার

কক্সবাজার সদর উপজে’লার চৌফলদ’ণ্ডীতে বজ্রপাতে শামসুল আলম (৫০) নামে এক লবণচাষির মৃ’ত্যু হয়েছে। এতে আ’হত হয়েছেন একজন। বিকেল ৪টার দিকে এ দু’র্ঘ’ট’না ঘটে।লবণচাষি শামসুল আলম সদর উপজে’লার চৌফলদ’ণ্ডী ইউনিয়নের নতুন মহাল মাঝের পাড়ার ইসমাইলের ছে’লে। আ’হত দেলোয়ার একই এলালার মৃ’ত আজম আলীর ছে’লে।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে কক্সবাজার সদর মডেল থা’নার ভা’রপ্রাপ্ত কর্মক’র্তা (ওসি) জানান, বিকেলে চৌফলদ’ণ্ডী নতুন মহাল মাঝেরপাড়ায় বৃষ্টি থেকে লবণ রক্ষা করতে গিয়ে হঠাৎ বজ্রপাতের কবলে পড়েন শামসুল আলম। তখন তিনি অ’জ্ঞা’ন হয়ে পড়েন। স্থানীয়রা তাকে উ’দ্ধা’র করে কক্সবাজার সদর হাসপাতা’লে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃ’ত ঘোষণা করেন।

Back to top button