আন্তর্জাতিক

‘একজন সুবেদার ও চার সে’না দেয়া হলে হামজা শাহবাজকে গ্রে’প্তা’র করা হবে’

পা’কিস্তানের সে’নাপ্রধান জেনারেল কা’মা’র জাভেদ বাজওয়াকে চিঠি লেখার একদিন পরে দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশের গভর্নর ওম’র সরফরাজ চিমা বলেন, যদি তাকে একজন সুবেদার ও চার সে’না দেয়া হয়, তবে তিনি হামজা শাহবাজকে গ্রে’প্তা’র করবেন। বৃহস্পতিবার তিনি এমন মন্তব্য করেন।

এক বিবৃতিতে পা’কিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের গভর্নর ওম’র সরফরাজ চিমা বলেন, সাংবিধানিক সঙ্কটের মধ্যে পড়া পাঞ্জাব প্রদেশকে ক্ষমতার জো’রে জি’ম্মি করা হয়েছে।

তিনি বলেন, পা’কিস্তানের পাঞ্জাব প্রদেশের সাংবিধানিক সঙ্কট নিয়ে বেশিরভাগ রাজনৈতিক দলের চুপ থাকা’টা উদ্বেগজনক। যদি আমাদের রাজনৈতিক সংস্কৃতিতে এটা চলমান থাকে তবে রাষ্ট্রপতি আরিফ আলভির ছে’লে একদিন সিন্ধু প্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী হবেন।

পাঞ্জাব প্রদেশের গভর্নর বলেন, আমা’র রাজনৈতিক সংগ্রামের সময় আমি একজন নিরপেক্ষ আম্পায়ার চেয়েছি।তিনি আরো বলেন, নিরপেক্ষ আম্পায়ার বলতে আমি উভ’য় পক্ষের জন্য একই আইন ও রীতি-নীতি চাই।পাঞ্জাবে হস্তক্ষেপ করার জন্য সে’নাপ্রধানের প্রতি গভর্নরের আহ্বান

পাঞ্জাবে সাংবিধানিক কাঠামো বাস্তবায়নে যথাযথ ভূমিকা পালন করার জন্য সে’নাপ্রধান কা’মা’র জাভেদ বাজওয়ার প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রদেশটির গভর্নর ওম’র সরফরাজ চিমা।বুধবার প্রদেশটির বিদ্যমান রাজনৈতিক সঙ্কট নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে পাঞ্জাবের গভর্নর প্রাদেশিক ও কেন্দ্রীয় সরকারের প্রতি জনগণের আস্থা পুনঃপ্রতিষ্ঠায় সে’নাবাহিনী প্রধানের কাছে তার ভূমিকা পালনের আবেদন জানান।
তিনি পাঞ্জাব সঙ্কট নিয়ে সে’নাপ্রধানের কাছে লেখা তার চিঠির অনুলিপি প্রধানমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতির কাছেও পাঠিয়েছেন।এর আগের দিন ওম’র সরফরাজ চিমা প্রদেশটির রাজনৈতিক ও সাংবিধানিক সঙ্কট নিয়ে প্রধানমন্ত্রী শাহবাজ শরিফের কাছে একটি চিঠি লিখেছিলেন।

ওই চিঠিতে পাঞ্জাবের গভর্নর তার সকল দক্ষতা ও সক্ষমতা ব্যবহার করে দেশের সংবিধানকে সুরক্ষিত রাখার সংকল্প ব্যক্ত করেন।প্রধানমন্ত্রীকে গভর্নর বলেন, কোনো ক্ষমতাই আপনার ছে’লের অসাংবিধানিক কার্যক্রম থামাতে আমাকে বিরত রাখতে পারবে না।সাবেক প্রধানমন্ত্রী ইম’রান খানের নিযু’ক্ত মুখ্যমন্ত্রী উসমান বুজদারের পদত্যাগপত্রকে বিতর্কিত ঘোষণা করে চিমা পিটিআইয়ের দলচ্যুত আইনপ্রণেতাদের প্রতি পিএমএল-এন সম’র্থন দিচ্ছে বলে অ’ভিযোগ করেন তিনি।

চিমা লিখেছেন, হামজা শাহবাজ প্রধানমন্ত্রীর ছে’লে হওয়ার সুবিধা গ্রহণ করছেন। তিনি বলেন, পাঞ্জাবে সকল ধরনের অসাংবিধানিক কার্যক্রমের ‘নাটের গুরু’ হলেন এই হামজা।গভর্নর বলেন, পাঞ্জাব পরিষদের সচিব মুখ্যমন্ত্রীর পদে ‘প্রতারণামূলক নির্বাচন’-সংক্রান্ত আইন লঙ্ঘনের বিষয় স’ম্প’র্কে তাকে অবহিত করেছেন।

তিনি আরো বলেন, পাঞ্জাবের অ্যাডভোকেট জেনারেলও (মুখ্যমন্ত্রী) নির্বাচনকে ‘অ’বৈ’ধ’ হিসেবে অ’ভিহিত করেছেন।গভর্নর বলেন, তিনি তার জানা থাকা সকল বিষয় রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেছেন এবং এ ব্যাপারে তার কাছে দিক-নির্দেশনা চেয়েছেন।তিনি প্রধানমন্ত্রীকে অ’ভিযু’ক্ত করে বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী হিসেবে আপনি আপনার ক্ষমতা অসাংবিধানিকভাবে ব্যবহার করার মাধ্যমে দেশকে রাজনৈতিক সঙ্কটের দিকে টেনে নিয়ে যাচ্ছেন।’তিনি বলেন, আপনি, আপনার ছে’লে ও ম’রিয়ম নওয়াজ ফৌজদারি অ’প’রা’ধে জ’ড়ি’ত। দেশের দুর্ভাগ্য যে জামিনে থেকেও আপনারা প্রধানমন্ত্রী ও পাঞ্জাবের মুখ্যমন্ত্রীর পদে রয়েছেন।

Back to top button