জাতীয়

মা’রামা’রি থামাতে গিয়ে ইউপি সদস্যের মৃ’ত্যু

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজে’লার চরপার্বতী ইউনিয়নে দুপক্ষের মা’রামা’রি থামাতে গিয়ে হার্টঅ্যাটাক করে মো. শাহ আলম (৬২) নামে এক ইউপি সদস্যের মৃ’ত্যু হয়েছে।

বৃহস্পতিবার রাতে কোম্পানীগঞ্জ উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে মা’রা যান তিনি।এর আগে ওই দিন বিকাল ৫টার দিকে চরপার্বতী ইউনিয়নের ছোট ফেনী নদীর ওপর নবনির্মিত কাঠের ব্রিজসংলগ্ন এলাকায় হার্টঅ্যাটাক করেন তিনি।

ইউপি সদস্য শাহ আলম চরহাজারী ইউনিয়নের ৪নং ওয়ার্ডের নবনির্বাচিত ইউপি সদস্য ও মৃ’ত মমিন উল্লাহর ছে’লে।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, বৃহস্পতিবার বিকালে ছোট ফেনী নদীর কাঠের ব্রিজ সংলগ্ন এলাকায় স্থানীয় যুবক ফাহাদের চাচাতো ভাই মানিক বিভিন্ন মে’য়েদের ছবি তোলে। তা দেখে বাধা দেয় ইউপি সদস্য শাহ আলমের ছে’লে শাহীন (২৪)। এক পর্যায়ে তাদের মাঝে বাগবিতণ্ডা ঘটে।

এ ঘটনার জেরে মানিকের জ্যাঠাতো ভাই ফাহাদ (৩২) তার দলবল নিয়ে শাহীনসহ কয়েকজনের ওপর হা’ম’লা চালায়। এ সময় ফাহাদের হাতে একটি দেশীয় ব’ন্দু’ক ও অন্যদের হাতে রাম’দাসহ বিভিন্ন অ’স্ত্র দেখা যায় বলে স্থানীয় প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান।

পরে ইউপি সদস্যের ছে’লে শাহীনের বন্ধুবান্ধবরা একত্রিত হয়ে ফাহাদ ও তার দলবলকে ধাওয়া করে। ছে’লের সঙ্গে প্র’তি’প’ক্ষের মা’রামা’রির খবর পেয়ে ইউপি সদস্য শাহ আলম ঘটনাস্থলে পৌঁছলে ফাহাদদের গ্রুপের কয়েকজন তাকে ধাক্কা দেয়।

এ সময় তিনি মাটিতে পড়ে যান এবং তখন তার বুকে প্রচণ্ড ব্যাথা অনুভব করার কথা জানালে সিএনজি যোগে তাকে কোম্পানীগঞ্জ উপজে’লা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাওয়া হয়। রাতে তিনি মা’রা যান।

কোম্পানীগঞ্জ থা’নার ওসি এসএম মিজানুর রহমান মৃ’ত্যুর সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, নি’হ’তের পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অ’ভিযোগ ছিল না। তাই তারা ময়নাত’দ’ন্ত ছাড়া লা’শ নিয়ে গেছে।

Back to top button