জাতীয়

মনোনয়ন না পেয়ে আ.লীগ নেতাকে পে’টালেন প্রার্থী

নড়াইলে ইউপি নির্বাচনে দলীয় মনোনয়ন না পেয়ে আওয়ামী লীগ নেতা সৈয়দ সামিউল আলম শরপুকে বেধড়ক পি’টি’য়েছেন প্রার্থী সৈয়দ তরিকুল ই’স’লা’ম। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় সদরের গোয়ালবাথান গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

আ’হত শরপু নড়াইল সদর হাসপাতা’লে চিকিৎসাধীন। তিনি নড়াইল জে’লা আওয়ামী লীগের প্রচার প্রকাশনা ও গবেষণা বিষয়ক সম্পাদক। তার কয়েকটা দাঁত ভে’ঙে গেছে, তার শরীরের হাত, পিঠ, পাসহ কয়েকটি স্থানে দেশীয় অ’স্ত্রের আ’ঘাতে ফেটে গেছে।

স্থানীয়রা জানান, বৃহস্পতিবার বিকালে আওয়ামী লীগ নেতা শরপু স্থানীয় চালতেতলা বাজার থেকে বাড়িতে ফিরছিলেন। পথিমধ্যে সৈয়দ তরিকুলের বাড়ির সামনে পৌঁছলে তরিকুল, তার ভাই ও আত্মীয়স্বজন মিলে শরপুর ওপর অ’তর্কিত হা’ম’লা করে। তারা তার মা’থায়, পায়ে এবং মুখে রড দিয়ে বেধড়ক পে’টায়।

বিগত ইউপি নির্বাচনে সদরের চন্ডিবরপুর ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ থেকে প্রথমে মনোনয়নের ঘোষণা আসে সৈয়দ তরিকুলের নামে। পরে সেটা পরিবর্তন হয়ে আজিজুর রহমান ভূঁইয়া মনোনয়ন পেলে শরপুর ওপর ক্ষিপ্ত হয় সৈয়দ তরিকুল ই’স’লা’ম ও তার পরিবারের লোকেরা। তার জের ধরে এ হা’ম’লা হয়েছে বলে শরপুর অ’ভিযোগ।
আ’হত শরপুর ভাই সৈয়দ জাফরুল হাসান বলেন, আমি চলে আসায় তরিকুলরা ভাইকে মে’রে চলে যায়। অ’জ্ঞা’ন অবস্থায় উ’দ্ধা’র করে হাসপাতা’লে আনি। আম’রা কোন্দল এড়িয়ে আইনগতভাবে বিচার চাই।

অ’ভিযু’ক্ত সৈয়দ তরিকুল ই’স’লা’ম হা’ম’লার ঘটনায় নিজের সম্পৃক্ততার অ’ভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, এটা ইউনিয়ন নির্বাচন নিয়ে কোনো গণ্ডগোল নয়। এলাকায় ইফতারি আয়োজন নিয়ে দুটি পক্ষ হয়ে গেছে; যা সবাই জানে।

নড়াইল সদর থা’নার ওসি শেখ কবীর হোসেন বলেন, এজাহার পেলে মা’ম’লা গ্রহণ করা হবে। যারা এ ঘটনায় যু’ক্ত আছেন তাদের গ্রে’প্তা’রে অ’ভিযান চলছে।

Back to top button