জাতীয়

পালিয়ে রক্ষা পেলেন বর, হলো না বিয়ে করা

ময়মনসিংহের ফুলপুরে বর ও পাত্রী পক্ষের মধ্যে ভ’য়াবহ র’ক্তক্ষয়ী সং’ঘ’র্ষ হয়েছে। আজ শুক্রবার বিকেলে উপজে’লার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের দেওখালী গ্রামে পাত্রীর বাড়িতে এ ঘটনা ঘটে। এতে উভয় পক্ষের অন্তত ২০ জন আ’হত হয়েছে। সং’ঘ’র্ষের এক পর্যায়ে বরযাত্রীরা বরসহ দৌড়ে পালিয়ে জীবন রক্ষা করে।

তবে নববধূর আর বরের বাড়িতে যাওয়া হয়নি। এ ঘটনায় পাত্রী পক্ষের মাঝে হতাশা বিরাজ করছে।
স্থানীয় সূত্রে জানা যায়, উপজে’লার রামভদ্রপুর ইউনিয়নের দেওখালী গ্রামের আলম মিয়ার মে’য়ের সাথে একই উপজে’লার সিংহেশ্বর গ্রামের বুলু মিয়ার ছে’লের বিয়ে ঠিক হয়। শুক্রবার বিয়েতে বরযাত্রী হিসেবে মে’য়ের বাড়িতে ৭০-৮০ জন আসেন। শুরুতে নির্ধারিত গেইটে বর পক্ষের লোকজনের সঙ্গে পাত্রী পক্ষের দাবি করা উপহার নিয়ে কথা কা’টাকাটি হয়। এক পর্যায়ে মে’য়ের বাবার ওপর বর পক্ষের লোকজন হা’ম’লা করে। এ সময় স্থানীয়রা লা’ঠিসোটা ও দেশীয় অ’স্ত্র নিয়ে বর পক্ষের ওপর হা’ম’লা চালায়। এক পর্যায়ে বর ও পাত্রী পক্ষের কয়েকজনের শরীরে আ’ঘাত লাগে। এ সময় বরপক্ষের লোকজন দৌড়ে জীবন রক্ষা করলেও বরের আর নতুন বউকে বাড়িতে নিয়ে যাওয়া হলো না।

পাত্রীর বাবা আলম মিয়া বলেন, বরের সাথে ১০-১২ জন আসার কথা থাকলেও তারা ৭০-৮০ জন এসেছে। বরপক্ষ প্রথমেই আমাদের ওপর আক্রমণ করে। আমাদের কয়েক লাখ টাকা খরচ হলেও শেষ পর্যন্ত বিয়ে না হওয়া দুঃখজনক।

Back to top button