আন্তর্জাতিক

আ’লো’চি’ত সেই হ’ত্যাকা’ণ্ড নিয়ে যা বললেন ওয়াইসি

ভা’রতের তেলেঙ্গানার সরুরনগরে ভিন্ন ধ’র্মের তরুণীকে বিয়ে করার অ’প’রা’ধে নাগারাজু (২৫) এক যুবকের হ’ত্যাকা’ণ্ড ঘিরে শুরু হয়েছে তোলপাড়। আ’লো’চি’ত ওই হ’ত্যাকা’ণ্ড নিয়ে মুখ খুলেছেন সর্বভা’রতীয় মজলিস-ই-ইত্তেহাদুল মু’সলিমিন (এআইএমআইএম) দলের প্রধান আসাদউদ্দিন ওয়াইসি। ভা’রতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি শনিবার এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানিয়েছে।

হায়দ্রাবাদের সংসদ সদস্য ওয়াইসি শুক্রবার এক বক্তব্যে ওই হ’ত্যাকা’ণ্ডের নিন্দা জানিয়ে বলেন, মু’সলিম মে’য়েটি নিজের ইচ্ছায় বিয়ে করেছিল। মে’য়েটির ভাইদের কোনো অধিকার নেই তার স্বামীকে হ’ত্যা করার।

ওয়াইসি আরও বলেন, সরুরনগরে সংঘটিত ওই হ’ত্যাকা’ণ্ডের নিন্দা জানাচ্ছি। মে’য়েটি স্বেচ্ছায় বিয়ে করার সিদ্ধান্ত নিয়েছিল। তার স্বামীকে খু’ন করার কোনো অধিকার তার ভাইদের ছিল না। সংবিধান অনুযায়ী এই ঘটনা একটি অ’প’রা’ধমূলক কাজ এবং ই’স’লা’মের দৃষ্টিতেও সবচেয়ে জঘন্য অ’প’রা’ধ।

প্রসঙ্গত, ভালোবেসে তফশিলি জাতির অন্তর্ভুক্ত মালা গোষ্ঠীর দলিত যুবক বিল্লিপুরম নাগারাজুকে বিয়ে করেছিলেন মু’সলিম তরুণী আসরিন সুলতানা। সুলতানার পরিবার এই বিয়ে মেনে নিতে পারেনি।

গত বুধবার নাগারাজুকে প্রকাশ্য রাস্তায় সুলতানার ভাই সৈয়দ মোবিন এবং মাসুদ আহমেদসহ পাঁচজন মা’রধর করেন। সুলতানাকে ঠেলে রাস্তায় ফেলে দেওয়া হয়। হেলমেট থাকার পরও নাগারাজুর মা’থায় গুরুতর আ’ঘাত লাগে। এতে তার মৃ’ত্যু হয়।

এই ঘটনায় ভা’রতীয় দ’ণ্ডবিধির ৩০২ ধারায় মা’ম’লা দায়ের করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পু’লিশ।ঘটনায় জ’ড়ি’ত থাকার অ’ভিযোগে সৈয়দ মোবিন এবং মাসুদ আহমেদকে গ্রে’প্তা’র করেছে পু’লিশ।

Back to top button