জাতীয়

৯ মাস হয়েছে বিয়ে করেছি, স্ত্রী’র আমাকে বুঝে উঠতে সময় লাগবে

স্ত্রী’র ফোনের পর টিটিই বরখাস্তের ঘটনায় রেলমন্ত্রী নূরুল ই’স’লা’ম সুজন বলেছেন, ৯ মাস হয়েছে নতুন বিবাহ করেছি, স্ত্রী’র আমাকে বুঝে উঠতে আরও সময় লাগবে।

রোববার দুপুরে রেলভবনে সাংবাদিকদের এসব কথা বলেন তিনি।রেলমন্ত্রী বলেন, আমি ১৩ বছরের এমপি। আমা’র স্ত্রী’ তো আমা’র রাজনৈতিক জীবনের সঙ্গে পরিচিত নন। আমা’র যে আগের স্ত্রী’ ছিলেন, তিনি নির্বাচন করতে গিয়ে মা’রা গেছেন। নতুন যাকে স্ত্রী’ হিসেবে নিলাম, আমাকে বুঝতে তার সময় লাগবে। একদিনে তো এ জায়গায় আমি আসিনি।

তাকে না জানিয়ে স্ত্রী’র ওই ফোন করা ঠিক হয়নি বলেও জানান রেলমন্ত্রী। তিনি বলেন, একজন যাত্রী হলে করতে পারে। কিন্তু মন্ত্রীর বউ হিসেবে তিনি সেটি করতে পারেন না। আমা’র স্ত্রী’র যদি রেলের ব্যাপারে কোনো অ’ভিযোগ থাকে, তা হলে তার উচিত ছিল বিষয়টি আগে আমাকে বলা। এটিই স্বাভাবিক। এই জায়গাটাই কিছুটা ব্যত্যয় হয়েছে বলে আমা’র ধারণা। যে কারণে আমি মনে করি, টিটিইকে বরখাস্ত করা ঠিক হয়নি। আম’রা তাই সেটি প্রত্যাহার করে নিয়েছি।

আমা’র স্ত্রী’র ওই আত্মীয়দের সঙ্গে কোনো কথা হয়নি এবং তথ্যটি মিথ্যা বলে জানান তিনি।স্ত্রী’র আত্মীয়কে না চেনার বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, মাত্র ৯ মাস হলো আমা’র বিয়ে হয়েছে। নতুন যে স্ত্রী’কে আমি গ্রহণ করেছি, তিনি ঢাকাতেই থাকেন। তার মামাবাড়ি ও নানাবাড়ি পাবনা। আমি শুনেছি তারা আমা’র আত্মীয়। এটি এখন ঠিক, যেটি আমিও এখন শুনছি। এর আগে পর্যন্ত আমি জানতাম না, এরা কারা এবং আমা’র জানার কথাও না। গতকাল পর্যন্ত জানতাম না যে অ’ভিযোগকারীরা আমা’র স্ত্রী’র আত্মীয়। পরে জানতে পেরেছি।

তিন যাত্রীকে জ’রিমানা করায় টিটিই বরখাস্ত হওয়ার ঘটনায় মন্ত্রীর স্ত্রী’ শাম্মী আকতার মনির নির্দেশনা ছিল বলে সংবাদমাধ্যমে প্রতিবেদন প্রকাশ করা হয়েছে।এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে রেলমন্ত্রী সুজন বলেন, আমিও বিষয়টি শুনেছি। তবে আমা’র স্ত্রী’ শুধু অ’ভিযোগ করেছেন, কাউকে সা’সপেনশন করতে বলেননি। সংশ্লিষ্ট ঘটনায় একটি ত’দ’ন্ত কমিটি করা হয়েছে। কমিটির মাধ্যমে পুরো ঘটনা বের হয়ে আসবে।

গণমাধ্যমে প্রকাশিত সংবাদ ও টিআইবির বিবৃতির বিষয়ে মন্ত্রী বলেন, আমা’র স্ত্রী’ যদি কোনো ধরনের ভুল করে থাকে… আমা’র ইনভলবমেন্ট ছিল না। যেটি বলা হচ্ছে বা টার্গেট করা হচ্ছে, এটি ঠিক না।প্রসঙ্গত, গত ৪ মে দিবাগত রাতে খুলনা থেকে ঢাকাগামী আন্তঃনগর সুন্দরবন এক্সপ্রেস ট্রেনে বিনা টিকিটে উঠে পড়েন তিন যাত্রী।

রেলমন্ত্রীর আত্মীয় বলে পরিচয় দেওয়ার পরও তাদের জ’রিমানা করেন রেলের ভ্রাম্যমাণ টিকিট পরীক্ষক (টিটিই) শফিকুল ই’স’লা’ম।

পরে রেলমন্ত্রীর সহধ’র্মিণীর ফোনের পর বরখাস্ত হন সেই টিটিই।বৃহস্পতিবার সেই ঘটনা গণমাধ্যমে এলে তীব্র সমালোচনার মুখে পড়েন রেলমন্ত্রী নূরুল ই’স’লা’ম সুজন। এ বিষয়ে গতকাল তিনি জানিয়েছিলেন, ওই যাত্রীদের তিনি চেনেন না। তার সঙ্গে কোনো আত্মীয়তার স’ম্প’র্ক নেই।পরে জানা যায়, ওই তিন যাত্রী রেলমন্ত্রীর সহধ’র্মিণীর আত্মীয়।

Back to top button