জাতীয়

দোকানির গুদাম থেকে হাজার লিটার তেল উ’দ্ধা’র

বাজারে কৃত্রিম সংকট তৈরিতেই মেসার্স খাজা স্টোর নামের দোকানের গুদামে এক হাজার ৫০ লিটার সয়াবিন তেল মজুত করে রাখা হয়েছিল। গতকাল রবিবার (৮ মে) নগরীর চৌমুহনীতে অবস্থিত সিডিএ কর্ণফুলী মা’র্কে’টে অবস্থিত ওই গুদামে অ’ভিযান চালিয়ে তেলগুলো জ’ব্দ করেছে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদফতর।

পরে ওই দোকানদারকে ৪০ হাজার টাকা জ’রিমানা করে তেলগুলো আশপাশের দোকানে বিক্রির ব্যবস্থা করা হয়। এ অ’ভিযানে নেতৃত্বে দেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর চট্টগ্রাম বিভাগীয় কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মো. আনিছুর রহমান।

তিনি বলেন, সয়াবিন তেলের কেন সংকট তৈরি হয়েছে সেটি যাচাই করতে আম’রা বহদ্দারহাট ও চৌমুহনী এলাকায় অ’ভিযান চালাই। বহদ্দারহাটে তেলের ডিলাররা কারসাজি করছেন–এমন কোনো অ’ভিযোগ পাইনি। তবে চৌমুহনী এলাকার কর্ণফুলী মা’র্কে’টের ভোজ্যতেলের দোকানগুলোতে অ’ভিযান চালানোর সময় মেসার্স খাজা স্টোরের গোডাউনে আম’রা ১ হাজার ৫০ লিটারের বেশি মজুত করা তেলের সন্ধান পাই।

আম’রা তেলগুলো জ’ব্দ করে তাৎক্ষণিক আশপাশের দোকানে বিক্রির ব্যবস্থা করেছি। তেল মজুত করার অ’প’রা’ধে খাজা স্টোরের মালিকের কাছ থেকে ভোক্তা অধিকার আইনে ৪০ হাজার টাকা জ’রিমানা করা হয়েছে বলে জানান আনিছুর রহমান।

Back to top button