জাতীয়

প্রস্তুত হচ্ছে হ’জক্যাম্প, প্যাকেজ আগামী সপ্তাহের মধ্যে

ক’রো’নার কারণে গত দুই বছর হ’জ করার সুযোগ পাননি বাংলাদেশের মু’সল্লিরা। এবছর হ’জের সুযোগ পাবেন ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন বাংলাদেশি। বাংলাদেশ থেকে হ’জের সম্ভাব্য প্রথম ফ্লাইট আগামী ৩১ মে। এরই মধ্যে হ’জ যাত্রীদের সার্বিক সহযোগিতায় প্রস্তুতি শুরু হয়েছে হ’জক্যাম্পে। এছাড়া আগামী সপ্তাহের মধ্যে হ’জ প্যাকেজ ঘোষণা করা হতে পারে বলে জানা গেছে।

সোমবার (৯ মে) হ’জ অফিসের পরিচালক যুগ্ম সচিব মো. সাইফুল ই’স’লা’ম জাগো নিউজকে এসব তথ্য জানান।এদিন রাজধানীর উত্তরার আশকোনায় হ’জ ক্যাম্পে গিয়ে দেখা যায়, হ’জ যাত্রীদের সহযোগিতায় ব্যস্ত কর্মক’র্তারা। বিভিন্ন ধরনের তথ্যের জন্য হ’জ যাত্রীদের অনেকেই ক্যাম্পে আসছেন। বিভিন্ন এজেন্সির লোকজনও ভিড় করছেন ক্যাম্পে।

সার্বিক বিষয় নিয়ে যুগ্ম সচিব মো. সাইফুল ই’স’লা’ম বলেন, সৌদি আরবের নির্ধারণ করা কোটায় এবছর বাংলাদেশে থেকে হ’জের সুযোগ পাবেন ৫৭ হাজার ৫৮৫ জন। এর মধ্যে ৫৩ হাজার ৫৮৫ জন বেসরকারিভাবে এবং ৪ হাজার সরকারিভাবে। বিমান ভাড়া পড়বে ১ লাখ ৪০ হাজার। তবে পুরো হ’জ প্যাকেজ এখনো ঘোষণা হয়নি। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে হ’জ প্যাকেজ ঘোষণা আসতে পারে।

হ’জযাত্রী প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২০২০ সালের ৫৪ হাজার যাত্রীর আবেদন ও টাকা জমা পড়ে আছে। তাদের সুযোগ দিয়ে এবছর বাড়তি যেতে পারছেন মাত্র সাড়ে ৩ হাজার মু’সল্লি।আগামী ৩১ মে ৪১৯ যাত্রী নিয়ে সম্ভাব্য প্রথম ফ্লাইট যাত্রা করবে জানিয়ে তিনি বলেন, ফ্লাইট ছাড়ার সময় ও বিস্তারিত তথ্য আগেই এসএমএস বা অন্য মাধ্যমে যাত্রীদের আম’রা জানিয়ে দেবো। হ’জযাত্রীরা ফ্লাইটের তিনদিন আগে ক্যাম্পে এসে অবস্থান নিতে পারবেন।

সৌদি আরবের বিধিনিষেধ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ৬৫ বছরের বেশি বয়সী কোনো মু’সল্লি এবার হ’জে যেতে পারছেন না। যাওয়ার দুই দিন আগে ক’রো’নার পিসিআর টেস্টের ফলাফল জমা দিতে হবে। টিকা নেওয়া থাকলেও শুধু যাদের ক’রো’না নেগেটিভ আসবে, তারা যেতে পারবেন। যাদের পজিটিভ আসবে তারা যেতে পারবেন না। তারা পরের বছর যাবেন।

হাজিদের নিরাপত্তা ও আইনশৃঙ্খলা বিষয়ক কার্যক্রম পরিচালনা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, যেহেতু ৩১ মে সম্ভাব্য প্রথম ফ্লাইট। এর সপ্তাহখানেক আগ থেকে ক্যাম্পে সব ধরনের নিরাপত্তা ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

Back to top button