জাতীয়

এম এ মুহিত কখনো ক্ষমতার বড়াই করতেন না

সাবেক অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত একজন ভালো মানুষ ছিলেন। দেশের উন্নয়নে, মানুষের কল্যাণে সারাজীবন তিনি কাজ করে গেছেন।

তিনি প্রকৃত অর্থেই একজন সফল মানুষ হিসেবে সর্বসাধারণের ভালোবাসা পেয়েছেন।
রাজধানীর তেজগাঁও কলেজ অডিটোরিয়ামে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশন আয়োজিত ম’রহু’ম মুহিতের স্ম’রণসভা ও দোয়া মাহফিলে বক্তারা এভাবেই সাবেক অর্থমন্ত্রীর স্মৃ’তিচারণ করেন। মঙ্গলবার (১০ মে) পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়।

ম’রহু’ম মুহিতের ছোট ভাই, বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের সভাপতি ও পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সভাপতিত্বে স্ম’রণসভায় মূল বক্তা ছিলেন সাবেক সচিব এম মোকা’ম্মেল হক।প্রয়াত বন্ধুর স্মৃ’তিচারণ করে মোকা’ম্মেল হক বলেন, আবুল মাল আবদুল মুহিত সারাজীবন দেশের উন্নয়নের জন্য চেষ্টা করেছেন এবং সফল হয়েছেন। নিজস্ব অর্থায়নে পদ্মা সেতু বাস্তবায়নের সাহসী পদক্ষেপ গ্রহণে অর্থমন্ত্রী হিসেবে বিশেষ অবদান রেখেছিলেন ম’রহু’ম মুহিত। অথচ তিনি কখনো ক্ষমতার বড়াই করতেন না।

মোকা’ম্মেল হক আরও বলেন, দীর্ঘকাল অর্থমন্ত্রী হিসেবে ম’র্যাদার সঙ্গে দায়িত্ব পালনকালেও তিনি ক্ষমতায় আছেন কি নেই তা কখনো বুঝা যেত না। তার অসাধারণ প্রজ্ঞায় দেশ ও জনগণ অনেক উপকৃত হয়েছে।অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. মোমেন বলেন, মুহিত ভাইয়ের মৃ’ত্যুতে আমি শুধু নিজের বড় ভাইকে হারাইনি। বরং একজন প্রকৃত বন্ধু ও আন্তরিক সহকর্মীকে হারিয়েছি। একই সঙ্গে দেশ হারিয়েছে এক অমূল্য সম্পদকে। মুহিত ভাই আমা’র তো বটেই, আমাদের অনেকের জন্যেই একজন মেন্টর ছিলেন।

তিনি বলেন, মুহিত ভাই দেখিয়ে গেছেন— সততা, আন্তরিকতা ও ঐকান্তিক ইচ্ছা থাকলে মানুষ যেকোনো ভালো কাজ বাস্তবায়ন করতে পারে। তিনি পৃথিবীর সব ভালো ভালো আইডিয়া গ্রহণ করতেন আর দেশের জন্য সেগুলো কাজে লাগাতেন। মুহিত ভাইয়ের স্ম’রণে এবং তাকে শ্রদ্ধা জানানোর এই উপলক্ষে আমাদের প্রতিজ্ঞা করা প্রয়োজন, আম’রা যেন সবাই দেশকে আন্তরিকভাবে ভালোবাসি, দেশের জন্য কাজ করি।

বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নির্বাহী সভাপতি ড. মশিউর মালেকের সঞ্চালনায় স্ম’রণসভা ও দোয়া মাহফিলে ম’রহু’ম মুহিতের রুহের মাগফিরাত কা’মনা করে দোয়া করা হয়।অনুষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু ফাউন্ডেশনের নেতৃস্থানীয়সহ অন্যান্য সদস্য এবং আমন্ত্রিত ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।

Back to top button