জাতীয়

তারেক রহমানের ঈদ উপহার আ.লীগ পরিবারের হাতে

২০১৫ সালে ঝুট ব্যবসাকে কেন্দ্র করে এনায়েতনগর ইউনিয়নের মাসদাইরে খু’ন হয়েছিলেন ৩নং ওয়ার্ড বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের সভাপতি মোকলেসুর রহমান। সরাসরি আওয়ামী লীগের রাজনীতি করলেও এ পরিবারের হাতেই তুলে দেয়া হয়েছে বিএনপির ভা’রপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানের ঈদ উপহার। বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল নিজে উপস্থিত থেকে মোকলেসের স্ত্রী’র হাতে তুলে দেন ওই উপহার। এমন ঘটনায় পুরো জে’লাজুড়ে বইছে নিন্দার ঝড়। বিস্ময় প্রকাশ করেছেন অনেকে।

তবে ঘটনাটি কেন্দ্রীয় নেতারা কিংবা থা’না বিএনপির নেতারা আগে থেকে অবগত ছিলেন না বলে জানান থা’না বিএনপির নেতাকর্মীরা। তাদের অ’ভিযোগের তীর জে’লা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনির দিকে। কারণ মোকলেসুর রহমান তার আপন বোন জামাই। ২০২০ সাল থেকেই রনি এই পরিবারের হাতে বিএনপির ঈদ উপহার তুলে দিয়ে আসছেন। চলতি বছরও এর ব্যতিক্রম করেননি।

জানা যায়, সারা দেশে সরকার বিরোধী আ’ন্দোলন করতে গিয়ে হা’ম’লা-মা’ম’লার শিকার হয়ে ব’ন্দি, গু’ম-খু’নের শিকার হওয়া দলীয় নেতাকর্মীদের বাড়িতে বাড়িতে ঈদ উপহার পাঠানো হয় তারেক রহমানের পক্ষ থেকে। ঈদের আগে নারায়ণগঞ্জের বিভিন্ন উপজে’লার নেতাকর্মীদের বাড়িতে এ উপহার পাঠানো হয়। তবে ফতুল্লা থা’নার এনায়েতনগরে ঈদের পরদিন এসেছিলেন বিএনপির কেন্দ্রীয় কমিটির যুগ্ম মহাসচিব হাবিব উন নবী খান সোহেল। সেদিন তিনি আমতলা এলাকার নি’হ’ত যুবদল নেতা কাউছারের পরিবারের হাতে ঈদ উপহার তুলে দেন। এরপর মাসদাইরে এসে সংক্ষিপ্ত এক সভা শেষে আরও কয়েক নেতাকর্মীর পরিবারের হাতে ঈদ উপহার তুলে দিয়েছিলেন। সে তালিকায় বঙ্গবন্ধু সৈনিক লীগের ৩ নং ওয়ার্ড এর সভাপতি নি’হ’ত মোকলেসের পরিবারের নামও ছিল। মোকলেসের স্ত্রী’ রোজিনা সেই উপহার গ্রহণ করেন। এ সময় জে’লা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি, ফতুল্লা থা’না বিএনপির আহ্বায়ক জাহিদ হাসান রোজে’লও উপস্থিত ছিলেন।

এ ব্যাপারে জানতে থা’না বিএনপির আহ্বায়ক রোজে’ল ও সদস্য সচিব শহিদুল ই’স’লা’ম টিটুকে একাধিকবার ফোন দিলেও রিসিভ করেননি। থা’না বিএনপির সাবেক সভাপতি আবুল কালাম আজাদের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমি শা’রীরিকভাবে অ’সুস্থ। পা ভেঙ্গে গেছে। রাজনীতি নিয়ে এখন আর ভাবি না। যারা ২৪ ঘণ্টা রাজনীতির খবর রাখেন তাদের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তারা বলতে পারবেন। আমি আসলে কিছুই জানি না। কে উপহার পেয়েছে, কে পায়নি, কিছুই জানি না আমি।

এদিকে, নাম প্রকাশ না করার শর্তে দলটির একাধিক নেতাকর্মীর অ’ভিযোগ, আম’রা এ ঘটনায় বিব্রত। কি করে আমাদের নেতা তারেক রহমান সৈনিক লীগের প্রয়াত নেতার পরিবারকে ঈদ উপহার সামগ্রী পাঠায় তা আমাদের বোধগম্য নয়। জে’লা যুবদলের সদস্য সচিব মশিউর রহমান রনি এককভাবে এ লিষ্ট করে দলকে অবমাননা করেছেন। তারেক রহমানকে অ’পমান করেছে। যে দলটি প্রতিনিয়ত আমাদের উপর নি’র্যা’তন চালাচ্ছে, সেই দলের একজন ওয়ার্ড সভাপতির পরিবারের হাতে ঈদ উপহার তুলে দেয়া মানে বিএনপির সাথে মশকরা করা। আম’রা এ ঘটনায় ক্ষুব্ধ। আশাকরি দলের কেন্দ্রীয় নেতারা এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে রনির বি’রু’দ্ধে শা’স্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। নয়তো দলের জন্য জীবন দেওয়া নেতাকর্মীদের আত্মা শান্তি পাবে না।

Back to top button