জাতীয়

দুষ্কৃতিকারীরা দল ছাড়ায় এলডিপি পবিত্র হয়েছে

লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি (এলডিপি) দেশের একটি প্রতিষ্ঠিত রাজনৈতিক দল। ড. কর্নেল (অব.) অলি আহম’দ বীর বিক্রম এবং ড. রেদোয়ান আহম’দ এ দলের মূল আকর্ষণ।

তাদের নেতৃত্বে অ’তীতের যেকোনো সময়ের চেয়ে এলডিপি আরও সংগঠিত ও শক্তিশালী।
বৃহস্পতিবার (১২ মে) দল থেকে দুই শতাধিক নেতাকর্মী পদত্যাগের পর দলটির যুগ্ম-মহাসচিব সালাহউদ্দিন রাজ্জাক এ কথা বলেন।

তিনি বলেন, এলডিপি থেকে পদত্যাগকারী বেশ কয়েকজন নেতা দীর্ঘদিন ধরে আ’মেরিকায় অবস্থানরত অ’বৈ’ধ প্রবাসীদের কাছে অর্থের বিনিময়ে এলডিপির প্রেসিডেন্টের স্বাক্ষর নকল করে পদ বিক্রি করে আসছে। যা এলডিপির ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করেছে। বিষয়টি এলডিপির দৃষ্টিগোচর হলে তিনি এই সমস্ত নেতাদের এলডিপির দলীয় কার্যক্রম থেকে বিরত থাকার নির্দেশ দেন। তাছাড়া এরা অনেকেই গত দুই বছর ধরে দলীয় কার্যক্রমে অংশ নেন না।

এ ব্যাপারে এলডিপির ভাষ্য এরা এলডিপি থেকে বিদায় নেওয়ায় এলডিপি পবিত্র হয়েছে। সারা দেশে এলডিপির লাখ লাখ নেতাকর্মী। এরা চলে গেলে দলের কিছু যায় আসে না। এলডিপি থেকে অ’তীতে যারা বিদায় নিয়েছে তারা কেউ রাজনীতিতে প্রতিষ্ঠিত হতে পারেনি এরাও পারবে না।

সালাহউদ্দিন রাজ্জাক বলেন, ‘মূল নেতৃত্ব থেকে চলে গিয়ে নিজেদের এলডিপি দাবি করতে পারে, কিন্তু তা হালে টিকবে না। যারা যাবে তারা হারিয়ে যাবে। মূল দল থেকে যারা ছিঁট’কে যাবে, তারা আর অবস্থান ফিরে পাবে না। ’

Back to top button